১৭ দিনের নবজাতক হত্যার বাবা সুজন খানের তিন দিনের রিমান্ড

মোরেলগঞ্জে ঘুমন্ত মা-বাবার পাশ থেকে নবজাতক সোহানা চুরি ও হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার শিশুটির বাবা সুজন খানের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। রবিবার (২২ নভেম্বর) দুপুরে বাগেরহাট সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট-২ এর বিচারক সমির মল্লিক এ আদেশ দেন। তবে সুজনের সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিল পুলিশ। এর আগে বৃহস্পতিবার(১৯ নভেম্বর) বিকেলে মোরেলগঞ্জ থানা পুলিশ সুজনকে আদালতে সোপর্দ করলে বিচারক তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় বলেন, মোরেলগঞ্জ শিশু সোহানা অপহরণ মামলায় সোহানার পিতা সুজন খানের তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। আমরা প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে জিজ্ঞাসাবাদ করব। দ্রুত সময়ের মধ্যে আমরা পুলিশ রিপোর্ট দিতে পারব। এছাড়াও হত্যার রহস্য উদঘাটন ও হত্যার সাথে জড়িতদের শনাক্ত করতে সুজনের ছোট ভাই রিপন খান(২৫) ও ভগ্নিপতি হাসিব শেখকে(৩০) এর ডিএনএ টেস্ট করার জন্য আলামত সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

রোববার (১৫ নভেম্বর) রাতে মোরেলগঞ্জ উপজেলার গাবতলা গ্রামে বাবা সুজন খান ও মা শান্তা আক্তারের সঙ্গে ঘুমিয়ে ছিল ১৭ দিন বয়সী সোহানা। মধ্য রাতে ঘুম ভেঙে তারা দেখেন যে শিশুটি হারিয়ে গেছে। সোমবার (১৬ নভেম্বর) ভোর থেকে পুলিশের একাধিক টিম শিশুটিকে উদ্ধারে অভিযান শুরু করলেও কোনো কূল-কিনারা পাচ্ছিল না পুলিশ। সোমবার (১৬ নভেম্বর) রাতে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে মোরেলগঞ্জ থানায় মামলা করেন শিশুটির দাদা আলী হোসেন খান। বুধবার ভোরে নামাজের পর নিজ ঘরের সামনের পুকুরে নাতির মরদেহ ভাসতে দেখেন আলী হোসেন। পরে পুলিশ শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

Please follow and like us: