শার্শায় আওয়ামী যুবলীগের দুই নেতাকে পিটিয়ে আহত

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
আবারও শার্শায় যুবলীগের দুই নেতাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে একজন চেয়ারম্যানের লালিত পোষ্য সন্ত্রাসীরা। উপজেলার অবহেলিত প্রবীন বর্ষীয়ান নেতাদের সন্মমনা কৃতজ্ঞতা সমাবেশে বেনাপোলে  যোগদান করায়  উলাশী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি মহিবুল হাসান মিঠু ও সাধারন সম্পাদক রবি গোলদারকে মারপিট করে একই ইউনিয়ন এর কয়েকজন সন্ত্রাসী। শনিবার সন্ধ্যার সময় বেনাপোল থেকে মিটিং শেষে বাড়ি যাওয়ার সময় উপজেলার গিলাপোল এলাকায় আগে থেকে ওৎ পেতে থানা সন্ত্রাসীরা লাঠি সোঠা দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে আহত করে। আহতরা শার্শা নাভারন বুরুজ বাগান হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

আহত যুবলীগ নেতা মিঠু ও রবি বলেন, আমরা যশোর জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও বেনাপোল পৌর মেযর আশরাফুল আলম লিটনের আয়োজনে প্রবীন নেতাদের কৃতজ্ঞতা সমাবেশ থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে উলাশি ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান আয়নাল হোসেনের সম্বন্ধকাঠির  সন্ত্রাসী সাইফুল ইসলাম, তরিকুল ইসলাম তরি,ডিটু মিয়া উলাশি গ্রামের তারেক ও শফিকুল লাঠি দিয়ে আমাদের মোটর সাইকেলে থেকে মেরে মাটিতে ফেলে বেধড়ক পিটিয়ে আহত করে। আমাদের নাক ও মুখ দিয়ে রক্ত বের হলে তারা চলে যায়। এর আগে তারা আমাদের ফোন করে মেয়র লিটনের সমাবেশে না যাওয়ার জন্য হুমকি দেয়। এরপর স্থানীয়রা এসে উদ্ধার করে আমাদের নাভারন হাসপাতালে ভর্তি করে।

সম্মন্ধকাঠি গ্রামের আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরামের নেতা মিলন মাহমুদ বলেন, সন্ত্রাসীরা মেরে চলে যাওয়ার পর চেয়ারম্যান আয়নাল এর শীর্ষ সন্ত্রাসী নজরুল বাবু এসে হুমকি দিয়ে বলে কেউ যদি এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করে তাকেও পিটানো হবে। তারা সেখানে দাঁড়িয়ে কৈফিয়ত তলব করে কেন মেয়র লিটনের অনুষ্ঠানে গেল।  এসময় ওই সন্ত্রাসীরা পাশের  ডাক্তার সাদি ও  আবু তালেব এর দোকান ভাংচুর করে। তিনি আরো বলেন শার্শার উলাশি ইউনিয়নে জামাতের রোকন  থেকে  আওয়ামীলীগে আসা আয়নাল চেয়ারম্যান আজ প্রকৃত আওয়ামীলীগদের মেরে ধরে তছনছ করে দিচ্ছে। সে জামাত থেকে মুখোশ পরে আওয়ামীলীগে প্রবেশ করে এসব কর্মকান্ড চালিয়ে বেড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেন।

শার্শা উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি ও উলাশি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শহিদুল আলম বলেন প্রকৃত আওয়ামীলীগের নেতা কর্মীরা আজ মার খাচ্ছে। বিএনপি জামাত থেকে যোগদান কারি কিছু সন্ত্রাসীদের হাতে মার খাচ্ছে। এরা একজন জামাত বিএনপি থেকে আসা চেয়ারম্যানের লালিত সন্ত্রাসী বাহিনী। এদের মদদ দাতা ওই চেয়ারম্যান।
এ ব্যাপারে শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন থানায় কোন অভিযোগ আসেনি। যদি কোন অভিযোগ আসে তবে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Please follow and like us: