শৈলকূপায় নিখোঁজের ৭ দিন পর কৃষকের মৃত দেহ পাওয়া গেল মাঠের ডোবায়

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় নিখোঁজের ৭ দিন পর পাড়ির পাশের একটি ডোবার কাদার নিচ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে রিপন (২৮) নামের কৃষকের মরদেহ। বুধবার ভোরে পরিবারের সদস্যরা ডোবার কাদার উপরে একটি হাত দেখতে পায় এরপর তারা সনাক্ত করে কৃষক রিপনের মরদেহ। রিপন ঝিনাইদহের শৈলকুপার ১২ নং নিত্যানন্দনপুর ইউনিয়নের চর রুপদহ গ্রামের মৃত আব্দুল বারিক বিশ্বাসের  ছেলে। এ ঘটনায় শৈলকুপা থানায় পরিবারের পক্ষ থেকে একটি জিডি করা হয়েছিল।

উপজেলার পদ্মনগর গ্রামের নজরুল ইসলাম জানান, তার শ্যালক রিপন দীর্ঘদিন মালেয়েশিয়া প্রবাসি ছিলেন। গত দেড় বছর আগে সে বাড়ি ফেরে। বাড়ি ফিরে সে নিজ জমিতে কৃষি কাজে নিয়োজিত হয়। গত ৯ই ডিসেম্বর বুধবার রাত আনুমানিক সাড়ে ৮টার দিকে বাড়ির পাশ^বর্তী পূর্ব মাঠে জমিতে কেটে রাখা ধান পাহাড়া দিতে যায়। এরপর সে আর বাড়ি ফিরে আসেনি। ঘটনাটি জানাজানি হলে তার জমি থেকে রিপনের ব্যবহৃত মোবাইল ও গায়ের চাদর উদ্ধার করে স্বজনরা। এরপর বুধবার ভোরে নিখোঁজের ৭ দিন পর ডোবায় কাদা চাপা অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হলো।

শৈলকুপা থানার ওসি(তদন্ত) মহসিন হোসেন জানান, শৈলকুপার চর রুপদহ গ্রামে রিপন নামের এক কৃষকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

Please follow and like us: