নড়াইলে প্রতিবেশির বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগ কৃষকলীগ নেতার

নড়াইল প্রতিনিধি:
নড়াইলের লোহাগড়া পৌরসভার সরদারপাড়ায় জমি সংক্রান্ত  বিরোধের জেরে প্রতিবেশির বিরুদ্ধে  হয়রানির অভিযোগ করেছেন উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি শেখ সাহিদুর রহমান। ১৭ ডিসেম্বর  বৃহস্পতিবার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি ওই অভিযোগ করেন।
শেখ সাহিদুর রহমান অভিযোগে বলেন, ‘আমার বসতবাড়িতে নির্মাণ কাজ ঠেকাতে নড়াইলের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) আদালতে ১৪৪ ধারায় মামলা করেছেন প্রতিবেশী সুশীল কুমার কর্মকার। এ ছাড়া সুশীল কিছু লোকজন নিয়ে আমার বিরুদ্ধে  মানববন্ধন করেছেন। আমাকে ভূমিদস‍্যু ও জালিয়াত আখ্যা দিয়ে সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে সুনাম ও ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন  করা হয়েছে। আমাকে হেয়প্রতিপন্ন করতে উদ্দেশ্যমূলকভাবে এগুলো করা হচ্ছে।’
সাহিদুর রহমান জানান, তিনি সরদারপাড়ার কমলা বালা, অনিল কুমার কর্মকার ও সুশীল কুমার কর্মকারসহ কয়েকজনের কাছ থেকে পাঁচটি দলিল মূলে ২৬ শতাংশ জমি কিনে ৪২ বছর ধরে বসতবাড়ি করে বসবাস করছেন। অথচ ১৪৪ ধারা মামলায়  তপসিলবর্ণিত দাগ ও খতিয়ান নম্বর সাহিদুর রহমানের ভোগদখলীয় জমি নয়।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা কৃষকলীগের সিনিয়র সহসভাপতি গোলাম মোর্শেদ, সাবেক কাউন্সিলর আলিমুজ্জামান, মলিস্নকপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি সাইফুর রহমান, যুবলীগ নেতা দিপুল হোসেন, ব্যবসায়ী স্বপন মোলস্না, কৌশিক আহম্মেদ প্রমুখ।
এ ব্যাপারে জানতে সুশীল কুমার কর্মকারের বাড়িতে গিয়ে পাওয়া যায়নি। তাঁর ছেলে বিষ্ণু কর্মকর বলেন, ‘শেখ সাহিদুর রহমানের বসতবাড়ির মধ্যে ১০ শতাংশ জমি আমাদের। তাঁর ভোগদখলীয় জমিতেই ১৪৪ ধারায় মামলা করা হয়েছে।’
Please follow and like us: