পাংশা পৌর নির্বাচনে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল

 

রাজবাড়ীর পাংশা পৌর নির্বাচনের মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাইয়ে ঋণ খেলাপীর দায়ে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী ওয়াজেদ আলী মাস্টার সহ দুই দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করেছে।

৩ জানুয়ারি রোববার পাংশা উপজেলা পরিষদে মনোনয়ন যাচাই-বাছাইয়ের পর এ ঘোষণা দেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. মাসুদুর রহমান জানান, আগামী ৩০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য রাজবাড়ীর পাংশা পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে চারজন, সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১১ জন ও ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ৪৬ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দেন।

নির্ধারিত দিনে রোববার পাংশা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অফিসে তাদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের পর ব্যাংকে ঋণ খেলাপি থাকায় আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মো. ওয়াজেদ আলী মন্ডল ও একই কারণে ২নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মোতালেব মোল্লা এবং মনোনয়নপত্রে দাখিলকৃত কাগজপত্র সঠিক না থাকায় ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী মো. ফরিদ হোসেন খানের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, পাংশা উপজেলা যুব লীগের আহবায়ক ফজলুল রহমান ফরহাদ স্বতন্ত্র প্রার্থী পাংশা পৌরসভায় নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র দাখিল করেছেন। কোন ঋণ খেলাপী ও কাগজপত্র সঠিক থাকায় নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই বোর্ড তার মনোনয়নপত্র বৈধ করেছেন।

এখন আপিল বোর্ডে ওয়াজেদ আলী মন্ডল তার প্রার্থীতা ফিরে না পেলে সর্বজন শ্রদ্ধেয় সদালাপী জনপ্রিয় নেতা ফজলুর রহমান ফরহাদ হবেন আওয়ামী লীগ তথা নৌকা প্রতীকের প্রার্থী। এমনটাই রোববার থেকে পাংশায় প্রচারিত হচ্ছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মাদ আলী, সহকারী কমিশনার (ভূমি) নুজহাত তাসনীম, উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আব্দুল আলীম ও উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা শ্যামল কুমার বিশ্বাসসহ প্রার্থী ও সমর্থকরা।

Please follow and like us: