উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত নারীর পরিচয় মিলেছে

ব্যুরো প্রধান খুলনাঃ

বাগেরহাট জেলার, শরণখোলায় কলাইক্ষেত থেকে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় উদ্ধার হওয়া অজ্ঞাত নারীর পরিচয় মিলেছে। উদ্ধার হওয়া ওই নারীর নাম লাকী বেগম। লাকি বেগম শরণখোলা উপজেলার রতিয়া রাজাপুর গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত গ্রাম পুলিশ আঃ সামাদ হাওলাদারের মেয়ে এবং রাজাপুর গ্রামের মৃত নজির হাওলাদারের স্ত্রী।রবিবার(২১ ফেব্রুয়ারি) রাতে আঙ্গুলের ছাপের মাধ্যমে জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য অনুযায়ী পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন(পিবিআই)নিহতের পরিচয় নিশ্চিত করেছেন।হত্যার আসল রহস্য উদঘাটনে পুলিশ বিভাগের কয়েকটি টিম কাজ করছ বলে জানিয়েছে শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান।

হত্যার শিকার ৩৮ বছর বয়সী লাকি বেগমের ৩টি মেয়ে রয়েছে, তারা স্থানীয় একটি মাদরাসায় পড়াশুনা করে।লাকি বেগমের স্বামী সুন্দরবনের বনদস্যুদের গুলিতে আহত নজির হাওলাদার ২০২০ সালে ২৭ অক্টোবর খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

এর আগে শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাতে শরনখোলা উপজেলার রায়েন্দা ইউনিয়নের রাজেশ্বর গ্রামের বেড়িবাঁধ সংলগ্ন একটি শস্যক্ষেত থেকে লাকি বেগমের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

সোমবার(২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান বলেন, নিহতের ময়নাতদন্ত সম্পূর্ণ করে পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। এই ঘটনায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।হত্যার বিষয়টি আমরা খুব গুরুত্বের সাথে দেখছি।ঘটনার রহস্য উদঘাটন ও হত্যাকারীদের শনাক্ত করতে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ করছে বলে জানান তিনি।

Please follow and like us: