৩৩৩ হটলাইনে কল: বগুড়ায় আড়াই হাজার পরিবার পেয়েছেন জেলা প্রশাসনের খাদ্যসহায়তা

৩৩৩ হটলাইনে কল: বগুড়ায় আড়াই হাজার পরিবার পেয়েছেন জেলা প্রশাসনের খাদ্যসহায়তা

-সঞ্জু রায়: কোভিড-১৯ এর কারণে সৃষ্ট প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবেলার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে কর্মহীন ও অসহায় মানুষের পাশে থাকার লক্ষ্যে বগুড়ায় হটলাইন নম্বর ৩৩৩ তে কলের মাধ্যমে এই বছরের পহেলা জুন হতে বৃহস্পতিবার ১৯ আগস্ট পর্যন্ত ২ হাজার ৫’শ ২টি পরিবারের কাছে খাদ্যসহায়তা পৌঁছে দিয়েছে জেলা প্রশাসন। বগুড়া জেলা প্রশাসক মো: জিয়াউল হকের নেতৃত্বে জেলা প্রশাসনের এই মানবিক কার্যক্রমে এখন পর্যন্ত উপকৃত হয়েছেন ১১ হাজার ২’শ ৮০ জন নানা শ্রেণীপেশার অসহায় মানুষ যে কার্যক্রম এখনো অব্যাহত রয়েছে।
জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জান্নাতুল নাঈম এর দেয়া তথ্যমতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে প্রতিদিনের ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার দিনব্যাপীও বগুড়ার বিভিন্ন স্থানে নানা শ্রেনীপেশার মানুষ যেমন: গৃহকর্মী, অটোরিক্সা চালক, বেসরকারি চাকুরী হারানো ব্যক্তি, গৃহশিক্ষক, দিনমজুর, দর্জিসহ প্রায় ৭০টি পরিবারের কাছে ৩৩৩ হটলাইন কলে প্রাপ্ত তথ্য অনুয়ায়ী খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। খাদ্যসামগ্রীস্বরুপ প্রতিটি পরিবারকে প্রদান করা হয়েছে চাল, ডাল, ভোজ্য তেল, সাবান, লবণসহ প্রয়োজনীয় নানা সামগ্রী। বগুড়া জেলা প্রশাসনের পক্ষে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট খালিদ বিন মনসুর যাচাইপূর্বক এই খাদ্যসামগ্রীগুলো নিজে পৌঁছে দেন সকলের কাছে।
এ প্রসঙ্গে বগুড়া জেলা প্রশাসক মো: জিয়াউল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এক অনন্য উদ্যোগ জাতীয় হটলাইন ৩৩৩ নম্বরে প্রাপ্ত কলের তথ্য যাচাই করে প্রতিদিন একজন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেটের মাধ্যমে খাদ্যসামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। করোনার এই ক্রান্তিকালে কোন দরিদ্র খেঁটে খাওয়া মানুষের উপর যেন চাপ না পরে আবার নিজের আত্মসম্মানের কথা চিন্তা করে যারা কারো নিকট নুন্যতম সহযোগিতাও চাইতে পারছেন না তাদের জন্যেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে এই কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে যা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলেও প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি।

Leave a Reply