নড়াইলে ম্যাজিষ্ট্রেটের বাস ড্রাইভারকে মারধোর,জেল জরিমানা-প্রতিবাদে আড়াই ঘন্টা সড়ক অবরোধ-জেল জরিমানা প্রত্যাহার সাপেক্ষে মিমাংশা

নড়াইলে ম্যাজিষ্ট্রেটের বাস ড্রাইভারকে মারধোর,জেল জরিমানা-প্রতিবাদে আড়াই ঘন্টা সড়ক অবরোধ-জেল জরিমানা প্রত্যাহার সাপেক্ষে মিমাংশা

-নড়াইল প্রতিনিধিঃ
ম্যাজিষ্ট্রেট কর্তৃক স্থানীয় একজন বাস ড্রাইভারকে মারধোর করার প্রতিবাদে নড়াইল-ঢাকা সড়ক আড়াই ঘন্টা অবরোধ করে রাখে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা। জেলা প্রশাসন ও পুলিশের কর্মকর্তারা শ্রমিকের জেল জরিমানা প্রত্যাহার সাপেক্ষে অবরোধ তুলে নেয়। শনিবার(২১আগষ্ট) সকাল ১০টা থেকে বেলা সাড়ে বারোটা পর্যন্ত এই ঘটনা ঘটে। তবে মারধোরের সুষ্ঠু বিচার না হওয়া পর্যন্ত শ্রমিকেরা রাস্তায় থাকার ঘোষনা দিয়েছে।
বিক্ষুব্ধ শ্রমিকেরা জানায়,নড়াইল-ঢাকা সড়কের মালিবাগ মোড়ে শনিবার সকাল ১০ টার দিকে জেলা প্রশাসনের ম্যাজিষ্ট্রেট শিবুপদ দাস কালিয়া সড়কের একটি গাড়ি(ঢাকা মেট্রো-জ-১৪-০০-০৪০) এবং রেলওয়ের কাজে নিযুক্ত একটি গাড়িকে আটকায় এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমান দাবী করে। কালিযা রুটের গাড়ির চালকের কাছে কাগজ চাইলে কাগজ দিতে কিছুক্ষন দেরী হয়। এই অবস্থায় ম্যাজিষ্ট্রেট সাথে থাকা আনসার দের হেলপার মশিয়ার কে মারার নির্দেশ দিলে তারা এবং ম্যাজিষ্ট্রেট নিজে মশিয়ারকে মারধোর করে। এরপর ম্যাজিষ্ট্রেট শিবুপদ গাড়ির ড্রাইভার আহাদ কে কলার ধরে টেনে নিজ গাড়িতে তুলে নেয় এবং ২ বছরের জেল ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে। এ ঘটনার পরপরই নড়াইল-ঢাকা সড়কের মালিবাগ সহ বিভিন্ন সড়ক অবরোধ করে রাখে। এরপর জেলা পুলিশের অতিঃপুলিশ সুপার মো.রিয়াজ,সদর থানার ওসি সহ উর্দ্ধতন কর্মকর্তা এবং অতিঃ জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট সুমি মজুমদার ঘটনাস্থলে আসেন। তারা বাস মালিক ও শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে কয়েক ঘন্টা আলোচনা করে ঘটনার মিমাংশার আশ^াস দেন।এসময় নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটের করা জেল ও জরিমানা প্রত্যাহারের আশ^াস দিলে অবরোধ তুলে নেয় শ্রমিকেরা। এ সময় উপস্থিত শ্রমিকরা জানান, ম্যাজিষ্ট্রেট শিবুপদ এ রকম আচারণ প্রায় করে থাকেন। প্রশাসনের কাছ থেকে শ্রমিকরা ভালো ব্যবহার আশা করেণ।

Leave a Reply