বেনাপোলে রফতানিবাহি দুটি মাছের গাড়ি আটক।। বিজিবি কাস্টমস মুখোমুখি

বেনাপোলে রফতানিবাহি দুটি মাছের গাড়ি আটক।। বিজিবি কাস্টমস মুখোমুখি

-বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
বেনাপোল লিংকরোড থেকে রফতানিবহী ২টি মাছের ট্রাক আটক করেছে বিজিবি। বন্ডেড এলাকার মধ্যে রফতানি গাড়ি আটক নিয়ে বিজিবি কাস্টমস মুখোমুখি। সোমবার সন্ধ্যা ৬ টার সময় ঢাকা মেট্রো-ড-১৪-৭৯১১ ও ঢাকা মেট্রো-ন-৮৭০০ নং ট্রাক দুটি মাছ সহ আটক করে। ওই গাড়িতে সাদা মাছের পরিবর্তে ইলিশ মাছ পাচার হচ্ছে বলে এমন অভিযোগ রয়েছে বিজিবির কাছে। তবে রফতানিমুখি ট্রাক দুটি কাস্টমস এর পরীক্ষা শেষ হওয়ার পর কাগজপত্রের ছাড় নিয়ে ভারত প্রবেশের মুখে আটক করে।

বেনাপোল সিএন্ড এফ স্ট্যাফ এ্যাসোসিয়েশন এর সাধারন সম্পাদক সাজেদুর রহমান বলেন ৪৯ বিজিবির এলাকায় ২১ বিজিবির একটি দল এসে দুটি ট্রাকে সাদা মাছ রফতানির বিপরিতে ভারতে ইলিশ মাছ পাচার হচ্ছে এমন অভিযোগের ভিত্তিতে আটক করে নিয়ে যেতে চাইলে সিএন্ডএফ ও কাস্টমস কর্মকর্তারা বাধা দেয়। ওই ট্রাকে কি জাতিয় পণ্য আছে তা লিংক রোডে পরীক্ষা করার জন্য কাস্টমস ও বিজিবিকে দেখার জন্য সংশ্লিষ্ট সিএন্ড এফ আবেদন করায়। সকল আবেদন উপেক্ষা করে ২১ বিজিবি মাছের ট্রাক নিয়ে যেতে চাইলে কর্মচারী ইউনিয়ন নেতা কর্মীরা বাধা দেয়। তারা বলে এটা কাচা পণ্য পচনশীল পণ্য। দ্রুত ছাড়তে হবে।
মাছের রফতানি কারক প্রতিষ্ঠান হচ্ছে সাউথ ফুড লি: নামে খুলনার একটি প্রতিষ্ঠান ও নিলা এন্টার প্রাইজ নামে সিএন্ডএফ প্রতিষ্ঠান।
কি ধরনের পণ্য ওই ট্রাকে আছে জানতে চাইলে ২১ বিজিবি সুবেদার মশিউর রহমান তা জানাতে অস্বীকার করে বলেন কমান্ডিং অফিসারের নির্দেশ ছাড়া কোন ব্রিফিং দেওয়া যাবে না।
এদিকে কাস্টমস এআরও শহিদুল ইসলাম বলেন, বন্ডেড এলাকার ৫ কিলোমিটার এর মধ্যে কোন শুল্ক পণ্য আটক করলে তা কাস্টমস এর সাথে সমন্বয় করে দেখার বিধি মালা রয়েছে। কিন্তু বিজিবি এসব মানে না।
বেনাপোল কাস্টমস এর ডেপুটি কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান বিজিবি সুবেদার মশিউর রহমাকে ওই পণ্য সমন্বয় করে দেখার কথা বললে বিজিবি সুবেদার বলেন আমাদের নেতৃত্বে দেখতে হবে। কারন পণ্য বাহি ট্রাক দুটি আমরা আটক করেছি।
এদিকে স্থানীয়রা বলেন ৪৯ বিজিবির আওতাভুক্ত এলাকায় ২১ বিজিবি এসে পণ্য আটক করার কোন নিয়ম আছে কিনা তা ক্ষতিয়ে দেখার বিষয়। তবে কাস্টমস ওই পণ্য পরীক্ষা করে ছাড়পত্র দিয়েছে। সেখানে যদি কোন অবৈধ পণ্য পাওয়া যায় তবে তাহলে কাস্টমস এর জন্য হবে কর্তব্য অবহেলা অথবা ঘুষ বানিজ্যের অভিযোগ।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার সময় লিংক রোড এলাকায় পণ্য তল্লাশি চলছিল বিজিবি ও কাস্টমস এর কর্মকর্তাদের।

Leave a Reply