নড়াইলে প্রতিমা ভাংচুরের ঘটনায় একজন গ্রেফতার

নড়াইলে প্রতিমি ভাংচুরের ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার নাম বিভূতিভূষণ বিশ্বাস পাভেল (৪৩)। সে শোলপুর গ্রামের হাজারীলাল বিশ্বাসের পূত্র। ২৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার বীভূতিভূষন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ হেলাল উদ্দীনের আদালতে প্রতিমা ভাঙার কথা স্বীকার করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।

সদর থানার ওসি শওকত কবির জানান, বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) সকালে বিভূতিভূষণকে সিঙ্গাশোলপুর বাজার থেকে গ্রেফতার করা হয়। পরে দুপুরে সে সিনিয়র জুডিশিয়াল আদালত, নড়াইল সদরের ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রতিমা ভাঙার বিষয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। ওসি আরও জানান, বিভূতি জানিয়েছে ইতিপূর্বে তাদের মন্দিরের প্রতিমার চোখে মুখে কে বা কারা খুঁচিয়ে দাগ বানিয়েছিল। সেই রাগ থেকে প্রতিমা ভেঙেছে। এ ঘটনায় সদর মামলা হয়েছে।

মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক অচিন্ত্য টিকাদার জানান, ১৮ আগস্ট রাতের কোনো এক সময়ে দুবৃত্তরা মন্দিরের ‘শান্তিমাতা’ ও ‘হরিচাঁদ ঠাকুর’ প্রতিমা দুটি ভাংচুর করে। ঘটনার পর মন্দির কমিটির সভাপতি চিত্তরঞ্জন দাস বাদী হয়ে সদর থানায় একটি জিডি করেন। এ ঘটনার পর জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান, পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায়, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদ ও পূজা উদযাপন পরিষদ ও জেলা মতুয়া সংঘের নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

-মোস্তফা কামা,নড়াইল ২৬/০৮/২০২১

Leave a Reply