অবশেষে ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে আজ থেকে গভীর সমুদ্রে মাঝ ধরবে জেলেরা 

অবশেষে ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে আজ থেকে গভীর সমুদ্রে মাঝ ধরবে জেলেরা

-মিঠুন গোস্বামীঃ

গভীর সমুদ্র মাছেদের নিরাপদ আশ্রয় স্থল হওয়ায় প্রতি বছর মত এবারও গত ২০ মে থেকে ২৩ জুলাই মধ্যরাত অব্দি উপকূলীয় এলাকার ২০০ নটিক্যাল মাইল পর্যন্ত ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা বঙ্গোপসাগরে আরোপ করা হয়েছিল।

তবে আজ মধ্যে রাত থেকে আবার সমুদ্রে মাছ ধরতে পারবে এই আশায় জাল, নৌকা ও ট্রলারের ইঞ্জিনসহ অন্যান্য সরঞ্জাম প্রস্তুত করছেন উপকূলের প্রায় বিশ হাজার জেলে।

শুক্রবার (২৩ জুলাই) দীর্ঘদিন  পর নোয়াখালীর হাতিয়ার জেলা পল্লীগুলোতে বইছে আনন্দের জোয়ার, জেলেদের মুখে ফুটছে হাসি। জালে রূপালী ইলিশের ঝাঁক ধরা পড়বে এমন আশায় বুক বেঁধেছেন জেলেরা।

এত কিছুর পরেও ভেস্তে যেতে পারে হাতিয়ার মাঝিদের সপ্ন বৈরি আবহাওয়া কারণে। গুড়িগুড়ি বৃষ্টি এখন মাঝিদের দুশ্চিন্তার কারণ। তবে স্থানীয় প্রশাসন বলছে নোয়াখালীর উপকূলে কোনো সতর্ক সংকেত নেই। তবে বৈরী আবহাওয়ায় গভীর সমুদ্রে মাছ না ধরাই ভাল।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তার মতে গভীর সমুদ্রে যে সব মাছ উৎপাদন হয় তার প্রজননের জন্য এই নিষেধাজ্ঞা কাজে এসেছে।এছাড়াও এই নিষেধাজ্ঞার প্রধান উদ্দেশ্য ইলিশসহ গভীর সমুদ্রের মাছকে নিরাপদে মা মাছে রূপান্তর করা, যাতে করে তারা নিরাপদে নদীতে ডিম ছাড়তে পারে। এক কথায় বলা যায় ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞার উদ্দেশ্য সফল হয়েছে।

Leave a Reply