“শরণখোলায় প্রতীক বরাদ্দ পেয়ে প্রচারণা শুরু’

প্রতীক বরাদ্দের পর বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলা পরিষদের উপ-নির্বাচনে আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করেছেন প্রার্থীরা। রবিবার বিকেলে আওয়ামীলীগের শোভাযাত্রা, পথসভা এবং বিএনপির কর্মীসভা অনুষ্ঠিত হয়।
নৌকার সমর্থনের শোভাযাত্রাটি প্রেসক্লাবের সামনে থেকে শুরু হয়ে উপজেলা সদর রায়েন্দা বাজার প্রদক্ষিণ করে পাঁচরাস্তার বাদল চত্বর মোড়ে পথ সভায় মিলিত হয়। এতে বক্তৃতা করেন নৌকার প্রার্থী রায়হান উদ্দিন শান্ত, আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আজমল হোসেন মুক্তা, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আসাদুজ্জামান স্বপন, বাদশা আলমগীর আলম, হুমায়ুন করিম সুমন, ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক সাইফুল ইসলাম জীবন, শরীফ খায়রুল ইসলাম প্রমুখ।

অপরদিকে, এদিন বিকেলে বিএনপি মনোনিত প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী কর্মী সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোল্লা ইসাহাক আলীর বাসভবনে ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নজরুল ইসলাম লালের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন, ধানের শীষের প্রার্থী মতিয়ার রহমান খান, বিএনপি নেতা এম এ কাদের হাওলাদার, আনোয়ার হোসেন পঞ্চায়েত, আ. জলিল হাওলাদার, মহিউদ্দিন বাদল, মিজানুর রহমান মোল্লা, জাহাঙ্গীর হাওাদার, শহিদুল ইসলাম লিটন, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহীম মোল্লা, মাসুদ হোসাইন মাসুম প্রমুখ।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা অঞ্জন সরকার জানান, সকাল ১১টায় জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. বেনজির আহম্মেদ তিন প্রার্থীর মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতীক বরাদ্দের ঘোষনা দেন। এর মধ্যে আওয়ামীলীগ মনোনীত রায়হান উদ্দিন শান্তকে নৌকা, বিএনপির মতিয়ার রহমান খানকে ধানের শীষ ও জাতীয় পার্টির অ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলামকে লাঙ্গল প্রতীক দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ৫ ডিসেম্বর শরণখোলা উপজেলা চেয়ারম্যান কামাল উদ্দিন আকন মারা যাওয়ায় পদটি শূণ্য হয়। এর পর ১৫ সেপ্টেম্বর তফসিল ঘোষনা করে নির্বাচন কমিশন। আগামী ২০ অক্টোবর ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে।

Please follow and like us: