“বাগেরহাট জেলার রামপালে প্রতারণা করে জমি লিখে নেওয়ার অভিযোগ”

রামপালের বাঁশতলী গ্রামের এক ব্যাক্তির জমি প্রতারণার মাধ্যমে দলিল করে ও টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বাঁশতলী গ্রামের খোরশেদ শেখের পুত্র ভুক্তভোগী ইদ্রিস শেখ প্রতিকার চেয়ে বাগেরহাটের পুলিশ সুপার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
অভিযোগে তিনি জানান, সদর উপজেলার কালিয়া গ্রামের মৃত মহব্বতের পুত্র মো. জাকির শেখ ও তার বোন ফরিদা বেগম ভুক্তভোগী ইদ্রিসকে ভুল বুঝিয়ে জমি রেজিষ্ট্রেশন করতে নিয়ে যান। ঘটনা বুঝতে পেরে তারা দৌড়ে এসে সাংবাদিক রব মোল্লার অফিসে আশ্রয় নেন। পরে তার মধ্যস্থতায় একটি মিমাংসা হয়। মিমাংসা মোতাবেক প্রথমে ৪০ হাজার টাকা নগদ দেন জাকির শেখ। পরবর্তীতে রামপালের গিলাতলার সোনালী ব্যাংক থেকে ১ লাখ ৩৫ হাজার টাকা তুলে দেওয়ার কথা বলেন। ইদ্রিস শেখ পাওনা টাকা আনতে গেলে লাইসেন্সধারী বন্দুক দিয়ে ভয় দেখিয়ে তাড়িয়ে দেন। এছাড়াও পূর্বে ও টাকা আত্মসাৎ করেছেন জাকির শেখ।

এ ব্যাপারে সাংবাদিক আঃ রব এর কাছে জানতে চাইলে তিনি সালিশ করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। অভিযুক্ত জাকির হোসেনের মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, অভিযোগ সঠিক নয়। পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগের শুনানী শনিবার। আমি তার জমি খাই না, সে অন্যের কাছে জমি বিক্রি করেছে।

Please follow and like us: