“বাগেরহাটের চিতলমারীতে সৎ ভাইয়ের বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ”

বাগেরহাট জেলার, চিতলমারী উপজেলার সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান রাশেদুজ্জামান পুকুলের বিরুদ্ধে জমি দখল ও মেরে ফেলার হুমকী দেওয়ার অভিযোগ করেছেন তার সৎ ভাই মোঃ বকুল শেখ। শনিবার দুপুরে বাগেরহাট প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে বকুল এসব অভিযোগ করেন।

বকুল বলেন, ১৯৯৪ সালে আমার আপন ভাই পৈত্রিকসূত্রে প্রাপ্ত জমির মধ্য থেকে এক খন্ড জমি ক্রয় করি। সেই থেকে আমি ওই জমি ভোগ দখল করে আসছি। এছাড়া ১৯৮৪ সালে পৈত্রিক সূত্রে প্রাপ্ত ৬৬ শতক জমিতে বিভিন্ন প্রকার গাছ রোপন করে ভোগ দখল করে আসছি। যা আমি ও আমার দুই বোন কোহিনুর ও হাজেরা পারভীণ বেবির নামে বিআরএস রেকর্ড হয়েছে। আমরা খাজনাও পরিশোধ করেছি। গত ১৩ অক্টোবর আমার সৎ ভাই রাশেদুজ্জামান পুকুল ৪০-৫০ জন সন্ত্রাসী নিয়ে প্রকাশ্য দিবোলোকে পৈত্রিকসূত্রে প্রাপ্ত আমার জমির উপর তৈরি করা একটি কাঠের ঘর ভাংচুর করে এবং বিভিন্ন মালামাল নিয়ে যায়। নিজের দাবি করে ওই জমিতে আমাকে প্রবেশ করতে নিষেধ করে। আমি যদি ওই জমিতে যাই তাহলে আমাকে মেরে ফেলবে বলে হুমকী দিয়ে যায়। তিনি আরও বলেন, এর আগে বিভিন্ন সময় ওই জমি নিয়ে শালীস বৈঠকে আমার পক্ষে রায় দিলেও আমি এখন ওই জমিতে যেতে পারছি না। আমি জমিতে গেলেই আমাকে মেরে ফেলবে। আমি এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। আমি প্রশাসন ও উর্দ্ধোন রাজনৈতিক ব্যক্তিদের কাছে জীবনের নিরাপত্তা ও নায্য পাওনা পেতে সহযোগিতা চাই।

এ বিষয়ে সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান রাশেদুজ্জামান পুকুল বলেন, তিনি আমাদের ভাই। আমার পিতার কাগজপত্র তার কাছে ছিল। তার সুবাধে তিনি ৩০ ধারা ও বিআরএস জরিফে ভুল তথ্য দিয়ে আমাদের অনেক জমি নিজ নামে রেকর্ড করে নিয়েছেন। অবৈধ উপায়ে নিজ নামে রেকর্ড করা আমাদের জমি দখলে রাখতে এসব অপপ্রচার করে আসছেন। অবৈধভাবে দখল করা জমি ফিরে পেতে আমরা আদালতে বাটোয়ারা মামলা, রেকর্ড সংশোধনের মামলা ও সাত ধারা করেছি। আদালত যে রায় দিবে আমরা তা মেনে নিব।

Please follow and like us: