বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জে আড়াই কোটি টাকার ক্ষতি ডুবে গেছে সাড়ে ৩ হাজার মৎস্য ঘের”

হাজার মৎস্য ঘের ডুবে গেছে। পৌরসভাসহ নীচু এলাকার শতশত মানুষ ও গবাদিপশু পানিবন্দী অবস্থায় রয়েছে। অতিরিক্ত পানি ও ঝড়ো হাওয়ায় বেশ বিছু কাচা বসতঘর ধ্বসে পড়েছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে শুরু হওয়া অবিরাম ভারী বর্ষন চলতে থাকে শুক্রবার বেলা ৮টা পর্যন্ত। ভারি বর্ষনে মৎস্য খাতে ক্ষয়ক্ষতি বেশী হয়েছে। বেলা ৮টার পর থেকেও দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া বিরাজ করছে। এবারের বৃষ্টিতে সাম্প্রতিককালের ঘুর্ণিঝড় আম্ফান ও বুলবুলের চেয়ে মৎস্যখাতে ক্ষতি বেশী হয়েছে বলে দাবি করেছেন ভূক্তভোগীরা।
এ বিষয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা বিনয় কুমার রায় বলেন, বহরবুনিয়া, নিশানবাড়িয়া ও জিউধরা ইউনিয়নের সাড়ে ৩ হাজার সৎস্য ঘের ডুবে গেছে। এতে ওই এলাকার ব্যবসায়ীদের কমপক্ষে আড়াই কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। এ ছাড়াও অন্যান্য এলাকার কিছু মৎস্য ঘের ও পুকুর ডুবে মাছ ভেসে গেছে। প্রকৃত ক্ষয়ক্ষতির পরিমান নিরুপনে আরো সময় লাগবে।
অপরদিকে মোরেলগঞ্জ পৌরসভার সবকটি ওয়ার্ডসহ খাউলিয়া, বলইবুনিয়া, চিংড়াখালী, তেলীগাতী, হোগলাবুনিয়া ও পঞ্চকরণ ইউনিয়নের শতশত মানুষ ও গবাদিপশু পানিবন্দী অবস্থায় রয়েছে।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, সকল চেয়ারম্যানদের নিকট ক্ষয়ক্ষতির পরিমান জানতে চাওয়া হয়েছে। বিস্তারিত জানতে সময় লাগবে।

Please follow and like us: