নারীর উন্নয়ন ছাড়া দেশের কাঙ্খিত উন্নয়ন সম্ভব নয় ———-মেয়র লিটন

যশোর জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বেনাপোল পৌর মেয়র আশরাফুল আলম লিটন বলেছেন, বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার অর্ধেক নারী। তাই নারীর উন্নয়ন ছাড়া দেশের কাঙ্খিত উন্নয়ন সম্ভব নয়। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু সংবিধানে নারী পুরুষের সমান অধিকার দিয়েছেন।বঙ্গবন্ধু কন্যা  প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীর সেই অধিকার ও ক্ষমতায়ন নিশ্চিত করতে নিরলসভাবে কাজ করছেন। অনেক বাধা বিপত্তি ও প্রতিকুলতা অতিক্রম করে নারীরা সমাজে নিজের স্থান করে নিয়েছেন। আমাদের দেশে নারীর ক্ষমতায়ন ও উন্নয়নের অনন্য উদাহরণ। কথগুলো বললেন বেনাপোল পৌর কনফারেন্স রুমে ২০২০-২০২১ অর্থ বছরের নারীর মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদানের মতবিনিময় সভায় মেয়র আশরাফুল আলম  লিটন।

সোমবার বেলা ১২ টার সময় উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদফতরের মতবিনিময় সভায় মেয়র লিটন বলেন,সরকারের সহযোগিতায় দেশের নারীরা স্বাবলম্বী হচ্ছে। নারীর ক্ষমতায়ন সমমর্যদা ও সম-অধিকার প্রতিষ্ঠায় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা এখন সারা বিশ্বে রোল মডেল।  রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে বিশ্বে বাংলাদেশ পঞ্চম। দেশের প্রধানমন্ত্রী , স্পিকার, শিক্ষামন্ত্রী নারী। বিশ্বের কোথাও রাষ্ট্রীয় উঁচু পদের এতো বেশী সংখ্যক নারী নেই। বাংলাদেশে আছে। তিনি বলেন ২০২০-২০২১ অর্থবছরে বেনাপোল পৌর সভায় আজ ৪০ জন মাতৃত্বজনিত ভুক্তভোগি নারীকে ভাতা প্রদান করবেন সরকার। এখানে বেনাপোল পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ড থেকে আবেদন পড়েছে ৬৫ টি। আমি আমার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে প্রতিমাসে  বাকি ২৫ জন  গর্ভবর্তী মাকে ১ হাজার করে টাকা এক বৎসর প্রদান করব।

মতনিনিময় সভায় ্উপস্থিত ছিলেন শার্শা উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার জাহান-ই গুলশান, প্রশিক্ষক রাকিবুজ্জামান, বেনাপোল পৌর  প্যানেল মেয়র জুলেখা বেগম,কাউন্সিলার জ্যোস্না বেগম, কামরুন্নাহার আন্না প্রমুখ।
উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার জাহান- ই গুলশান বলেন, বেনাপোল পৌর সভায় মাতৃত্বজনিত গর্ভবর্তী ৪০ জন নারী এ অর্থ বছরে ভাতা পাবেন। প্রতিটি মাকে ৬ মাস পর পর এ ভাতা প্রদান করা হবে। তারা তিন বছর যাবৎ এ ভাতা পাবেন। তিন বছরে মোট ভাতা পাবেন ২৮৮০০ টাকা।

Please follow and like us: