বেনাপোল পোষ্ট অফিসের কর্মকান্ডে স্থবিরতা

বেনাপোল পোষ্ট অফিস এর সামগ্রীক কর্মকান্ডে স্থবিরতা পরিলক্ষীত হচ্ছে। এই পোষ্ট অফিসে যারা পোষ্ট ব্যাংকিং কিম্বা সঞ্চয় পত্রের মাধ্যেমে অর্থ সঞ্চয় করছেন সে সকল গ্রাহকদের অনেকেই প্রয়োজনে অর্থ উত্তোলনের বেলায় হয়রানির শিকার হচ্ছেন। অনেক আমানতকারী অভিযোগ করেছেন যে,তারা জমাকৃত টাকা থেকে প্রয়োজনীয় টাকা তুলতে গেলে পোষ্ট অফিস থেকে বলা হচ্ছে যে আমাদের কাছে এখন টাকা নেই। টাকা হেড অফিস থেকে আসলে আমরা দিতে পারব। এরকম ভাবেই আজ নয় কাল কাল নয় পরশু চলতে থাকে গ্রাহকদের ঘোরাঘুরি ও হয়রানি।

এদিকে সাধারন নাগরিকদের নামে বিভিন্ন এলাকা থেকে জরুরুী চিঠিপত্র বা মানি অর্ডার আসলেও তা যথাসময়ে বিলি বন্টন করা হচ্ছে না। বলা চলে সামগ্রীক ভাবে কর্মে গাফিলতি পরিলক্ষীত হচ্ছে। জানা গেছে পত্র বিলি কারক ইকরামুল হক কোন ব্যাক্তির নামে আসা চিঠি পত্র নিজে হাতেই বিলি না করে ফোনের মাধ্যেমে পোষ্ট অফিসে ডেকে চিঠি পত্র বিলি বন্টন করেন। আর যে সব চিঠি পত্র এভাবে ডেকে বিলি বন্টন করা সম্ভব না হয় সেগুলি দিনের পর দিন পোষ্ট অফিসের ঝুলিতে পড়ে থাকে। এসব অভিযোগ সম্পর্কে এই ব্যাক্তির কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমাদের লোকবল কম তাই বাধ্য হয়েই এ ভাবেই কাজ কর্ম চালাতে হচ্ছে।

বেনাপোল পোষ্ট অফিসে আমানতকারী আছমা খাতুন এই প্রতিবেদকের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন আমি আমার জমাকৃত অর্থ থেকে কিছু উত্তোলনের জন্য চেষ্টা করে এক সপ্তাহ যাবৎ ব্যর্থ হচ্ছি। তিনি জানান এরকম হয়রানি আমার মত আরো অনেক আমানতকারী হচ্ছেন।

সামগ্রীক অভিযোগ সম্পর্কে পোষ্ট মাস্টারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমাদের লোকবল কম, বেনাপোলে আমানতের টাকা বেশী রাখার ব্যবস্থা নেই এসব নানাবিধ কারনে কাজের গতি মাঝে মধ্যেই কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়লেও কর্মকান্ডে গতিশীলতা রাখতে আমাদের কর্মীদের আন্তরিকতার অভাব নেই।

Please follow and like us:

আপনার মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here