বেনাপোলে ফেনসিডিল দিয়ে দুই যুবককে ফাঁসানোর অভিযোগ

আবারও মিথ্যা মামলা দিয়ে ফেনিসিডিল দিয়ে চালান দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বিজিবির বিরুদ্ধে। দুইটি পৃথক মামলায় ২৫০ বোতল ফেনসিডিল দিয়ে আবু হুরাইরা ও আমিরুল নামে দুই যুবককে চালান দিয়েছে। রোববার রাত সাড়ে ৮ টার সময় রঘুনাথপুর বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা সাদিপুর মাঠ থেকে তাদের আটক করে। এসময় আটককৃতদের কাছে কোন ভারতীয় মাদক বা অন্য কোন পণ্য ছিল না; এমন অভিযোগ করেছে ওই দুই যুবকের পরিবার থেকে।

আটককৃতরা হলো বেনাপোল পোর্ট থানার সাদিপুর গ্রামের জালাল উদ্দিন এর ছেলে আমিরুল ইসলাম ও একই গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে আবু হুরাইরা।

বেনাপোল পোর্ট থানার ভিতর আটককৃতরা বলে তারা রাত্রে সাদিপুর মাঠে চা পাতা আনার জন্য যাচ্ছিল। এসময় রঘুনাপুর ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যরা তাদের আটক করে ক্যাম্পে নিয়ে যায় এবং মারধর করে। সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার সময় তাদের দুইজনকে ২৫০ বোতল ফেনসিডিল দিয়ে বেনাপোল পোর্ট থানায় চালান দেয়। এর মধ্যে আমিরুলকে ১০০ বোতল ও আবু হুরাইরাকে ১৫০ বোতল দিয়ে মামলা দায়ের করে। মামলা নং যথাক্রমে ৪৪ ও ৪৫তারিখ ২৬/১০/২০।

৪৯ ব্যাটালিয়ন এর রঘুনাথপুর বিজিবি ক্যাম্পের হাবিলদার দেলোয়ার হোসেন বলেন, রোববার রাত সাড়ে ৮ টার সময় তাদের দুইজনকে ফেনসিডিল সহ আটক করা হয়। এর মধ্যে আমিরুল এর নিকট থেকে ১০০ বোতল ও হুরাইরার নিকট থেকে ১৫০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার হয়। তাদের উভয়ের নামে পৃথক মামলা দিয়ে বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তবে ফেনসিডিল এর মালিক পোর্ট থানার সাদিপুর গ্রামের নেদার ছেলে মুরাদের। তার নামে মামলা দেওয়া হলো না কেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন এটা আমাদের মাথায় আছে।

বেনাপোল পোর্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মামুন খান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন আটককৃতদের যশোর আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Please follow and like us: