বেনাপোল বাজারে পৌর কর্তৃপক্ষের সাথে অসৌজন্যমুলক আচারনের অভিযোগ

বেনাপোল বাজারের ফুটপাত উচ্ছেদ ও মাস্ক বিতরনের সময় পৌর কর্তৃপক্ষের সাথে অসৌজন্যমুলক আচারনের অভিযোগ

-বেনাপোল প্রতিনিধিঃ
করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারী বেসরকারী এনজিও সংস্থা বিভিন্ন ভাবে উদ্যেগ গ্রহন করেছে। সীমান্ত বর্তী শহরগুলোতে সরকার আরো বেশী সতর্কতা ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার জন্য নির্দেশনাও দিয়েছেন। বিশেষ করে দেশের বৃহত্তম স্থল বন্দর ও আন্তর্জাতিক চেকপোষ্ট ভারতের প্রধান প্রবেশদ্বার বেনাপোলে সতর্কতা অবলম্বনের জন্য সরকার বিশেষ নির্দেশনা দিয়েছেন। সেই অনুযায়ী বেনাপোল পৌরসভা সীমান্ত শহর বেনাপোলে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে। সাম্প্রতিক সময়ে করোনা ভাইরাসের বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দেওয়ায় পৌর মেয়র আশরাফুল আলমের নির্দেশে পৌরসভা রাস্তার ফুটপাত উচ্ছেদের উদ্যেগ নেয়। সেই সাথে বাজারে ব্যবসায়ি ও ক্রেতাদের মাঝে স্বাস্থ্য উপকরন বিতরন অব্যহত রেখেছে। গত দুই দিনের ন্যায় আজ ফুটপাত উচ্ছেদে মাঠে নামলে বাজারের হালিম ব্যবসায়ি কুদ্দুস আলী বেনাপোল পৌরসভা কর্মীদের উপর চড়াও হয়। এক পর্যায় পৌর কর্মীদের তিনি ধাক্কা দেন।

বেনাপোল পৌরসভার ভারপপ্রাপ্ত প্রশাসনিক কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মাসুম বলেন,দেশে করোনা মহামারি অধিকতর বেড়ে যাওয়ায় আমরা বেনাপোল শহরকে করোনা মোকাবেলা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে মাঠে কাজ করে যাচ্ছি। যশোর বেনাপোল মহাসড়কের উপর প্রতিদিন বসে ফুটাতে বাজার। এবং এখান দিয়ে অগনিত মানুষের চলাফেরায় ঝুকি বাড়ার আশঙ্কায় ফুটপাত উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গত দুাইদিনের অভিযান অমান্য করে ফুটপাতে বাজারের হালিম ব্যবসায়ি তার চেয়ার টেবিল সহ অন্যান্য মালামাল রেখে বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টার দিকে ব্যবসা পরিচালনা করেন। পৌর কর্তৃপক্ষ তা নিশেধ করায় সে বাজার পরিদর্শক আমজাদ হোসেন জনি, কর আদায়কারী শিমুল আক্তার, ও স্বাস্থ’ সহকারী হাফিজুর রহমান এর উপর চড়াও হয়। এবং এলাকার প্রভাব খাটিয়ে তাদের ধাক্কা দেন।

উচ্ছেদ অভিযানের নেতৃত্ব দেন বেনাপোল পৌর প্যানেল মেয়র সাহাবুদ্দিন মন্টু। তিনি বলেন আমরা তথা দেশবাসী এক দুঃসময় পার করছি। সবথেকে বেশী ঝুকিতে সীমান্ত অধিবাসি। তাই এই সীমন্ত শহর এর জনগনকে করোনা মহামারি থেকে রক্ষা করতে আমরা প্রতিদিন মাস্ক সহ অন্যান্য উপকরন বিতরন ও ফুটপাত উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত রেখেছি। আজ একজন ব্যবাসায়ি পৌর কর্মচারীদের সাথে যে আচারন করেছে তা অত্যান্ত দুঃখ জনক।
বেনাপোল বাজার কামিটির সভাপতি আাজিজুর রহমান আজু বলেন, পৌর কর্মচারীদের সাথে বাজারের জনৈক হালিম ব্যবসায়ি কুদ্দুসের সাথে অপ্রিতিকর ঘটনা ঘটেছে । আমরা বিষয়টি দেখব।

বেনাপোল পোর্ট থানার এসআই মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, পৌর কর্তৃপক্ষের সাথে বাজারে একজন ব্যবসায়ি অশোভন আচারন করেছেন। তবে এরপর যাতে কোন রকম গন্ডগোল ঝামেলা না হয় তার জন্য পুলিশ টহল দিচ্ছে।

Please follow and like us:

আপনার মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here