ঝিনাইদহে কাচামালের অস্বাভাবিক মূল্যবূদ্ধি

প্রতি কেজি দেশাল ঝাল আরত দারি ১৭০-১৮০ টাকা কেজি পাইকারি দরে বিক্রি করছেন। খুচরা বিক্রয় এবং ক্রয় করছেন ২০০ টাকা কেজি। পেঁয়াজ প্রতি কেজি ৭০-৭৫ টাকা পাইকারী এবং খুচরা বিক্রয় ৮০ থেকে ৮৫ টাকা।
ঝিনাইদহ বাজারে উস্তের দামও চরাও ৬০-৭০ পাইকারী বিক্রয় হচ্ছে আর খুচরা বিক্রয় হচ্ছে ৭৫ থেকে ৮০ টাকা। চাউল এর দাম বস্তা প্রতি বৃদ্ধি পেয়েছে ৫০ টাকা, কেজিতে ১ থেকে ২ টাকা। ক্রেতাদের কাছ থেকে যে যেমন পাচ্ছে তেমন হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা। আলুর দাম সরকার ৩০ টাকা নির্ধারন করার পরও বেশি দামে বিক্রয় হচ্ছে বলে জানা গেছে।
কাচামাল এবং চাউল এর দাম বূদ্ধি, পাওয়াতে ভোগান্তিতে পরেছে নিম্ম আয়ের খেঠে খাওয়া মানুষ।
উলেখ্য এক ক্রেতা জানান যে ভাই আমি আয় করি দিন ৫০০ টাকা প্রয়োজনীয় জিনিস পএের দাম যদি এত হয় তাহলে সংসার চালানো অনেক কষ্ট হয়ে যাবে।
কিছু সিন্ডিকেট বড় বড় অসাধু ব্যাবসায়ী নিজেদের লাভের কথা চিন্তা করে দেশের ক্ষতি করছে। বাজারে দরপতন হওয়াতে নিম্মআয়ের মানুষ অনেক ক্ষতিগস্ত হচ্ছে আইন শৃংখলা বাহিনীর তৎপরতা থাকলেও কিছু সিন্ডিকেট অসাধু ব্যবসায়ী তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।
Please follow and like us: