ঝিনাইদহে সিঁদুর উৎসবে মেতেছিল নারীরা

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দুর্গোৎসবে দেবী দুর্গার বিদায়ের সময়ে সিঁদুর খেলায় মেতেছিল রমনীরা। সোমবার বেলা ১২ টার দিকেল শহরের বারোয়ারি পুজা মন্দির, কালীতলা পুজা মন্দিরসহ বিভিন্ন স্থানের মন্ডপে মন্ডপে চলে সিঁদুর কোটা যাত্রা (সিঁদুর খেলা)। সকালে পুর্জা অর্চনার পর দেওয়া হয় পুষ্পাঞ্জলী। এরপরই হিন্দু বিবাহিত নারীরা দেবীর পায়ে লাল টকটকে সিঁদুর নিবেদন করেন। পরে সেই সিঁদুর একে অপরকে লাগিয়ে আগামী দিনের জন্য শুভ কামনা করেন। শহরের বারোয়ারি পুজা মন্দিরে আসা বাসন্তী রানি নামের এক ভক্ত জানান, সিঁদুর কোটা যাত্রা (সিঁদুর খেলা)র মাধ্যমে নারীরা স্বামী ও সন্তানের দীর্ঘায়ূ কামনা করেন। তারা যেন ভালো থাকেন এই কামনা করেন সিঁদুর খেলার মাধ্যমে। পুজারীরা জানান, এ বছর জেলার ৬ উপজেলায় ৪’শ ৩ টি মন্ডপে দুর্গাপুজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দুপুরের পর বিসর্জনের মাধ্যমে শেষ হয় উৎসব। বিসর্জনের মধ্য দিয়ে ধরিত্রী থেকে স্বামীগৃহে ফেরেন দুর্গতিনাশিনী দেবী দুর্গা। মহামারী করোনা ভাইরাস থেকে বিশ্ববাসিদের মুক্ত আর দুষ্টের দমন ও সৃষ্টের কল্যাণ করবেন তিনি এমনটি আশা  করেন তারা।
Please follow and like us: