ঝিনাইদহের পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান (পিপিএম) কক্সবাজারে বদলী

ইনছান আলী, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃ আমার অন্তরের কিছু কথা আজ লিখতে ইচ্ছে হলো তাই লিখলাম।

আমার পেশাগত দায়িত্ব পালন কালে ঝিনাইদহে অনেক পুলিশ অফিসার দেখেছি। আমার বিবেকের কাছে বার বার প্রশ্ন করে দেখলাম তাদের মধ্যে সব থেকে সৎ কর্মকর্তা ঝিনাইদহের বর্তমান পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামান ।
প্রশ্ন আসতে পারে পুলিশ আবার সৎ হয় নাকি?
কিন্তু তার কর্ম তার দক্ষতার কাছে সব অসৎ কিছু হার মেনেছে। তিনি বহুগুণে গুণান্নিত।।
তিনি ঝিনাইদহে যোগদান করার পরেই ঝিনাইদহের পুলিশ বিভাগের সকল অসৎ অফিসারদের তালিকা করেছে।  তার কাজের যেন কোন দুর্নাম না হয়  সে জন্য অসৎ পুলিশ অফিসারদের এ জেলা থেকে বিতারিত করেছে।
একটা মানুষ সবার কাছে ভালো হয় না। কারন ভালো কিছু করতে গেলে জুলুমকারীরা অন্যায়কারীরা কিছু কথা রটাবেই সেটার জন্য কারও কোন যায় আসে না। তিনি কোন অপশক্তির কাছে মাথা নত করে না। কোন শক্তিই তাকে অন্যায় কাজ করাতে বাধ্য করতে পারে না। এটাও তার একটি সাহসিকতা।
আমরা সত্যি সত্যিই ঝিনাইদহের মানুষ এমন একজন পুলিশ সুপার পেয়ে গর্বিত।
তার অনেক গুন আছে যা বলে শেষ করা যাবে না। তবে তার কিছু দোষও আছে। সেগুলো হচ্ছে কেউ অন্যায় করলে তিনি ছাড় দেন না, সে যত শক্তিশালীই হোক না কেন। কোন পুলিশ অফিসার যদি অন্যায় করে তার বিরুদ্ধেও তিনি আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বিন্দু পরিমাণ কাল ক্ষেপন করেননি। কোন পুলিশ  অফিসার যদি কারও কাছ থেকে ঘুষ নেয় সেটা জানতে পারলে সেখানেও কোন ছাড় নাই। শুধু এগুলোই নয় রয়েছে মানবিক গুণাবলি।  প্রকাশ্য অপ্রকাশ্যে অভাবগ্রস্ত হতদরিদ্রদের পাশে দাড়িয়ে অনন্য নজির সৃষ্টি করেছেন।
সন্ত্রাস কবলিত ও  মাদকমুক্ত ঝিনাইদহ উপহার দেওয়ার প্রাণান্তকর চেষ্টাপ্রচেষ্টা জোর চলমান রেখেছেন।
আজ তার বদলির সংবাদটা শুনে খুব কষ্ট লাগছে। তারমত একজন সৎ পুলিশ অফিসারকে হারালাম।
দোয়া করি সে যেখানেই যাবে ভালো কাজ করবেন।
Please follow and like us: