শৈলকুপায় সুজন নামে এক যুবক চারদিন ধরে নিখোঁজ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক ২

ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার আউশিয়া গ্রাম থেকে সুজন (২০) নামে এক কলেজ ছাত্র নিখোঁজ হয়েছেন। তিনি মালয়েশিয়া প্রবাসি জিল্লুর রহমানের ছেলে। পাওয়ানা টাকা আনতে গিয়ে তিনি আর বাড়ি ফেরেননি বলে পরিবারের অভিযোগ। শৈলকুপা থানায় এ ঘটনায় একটি জিডি হয়েছে। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাকিব ও নাজমুল নামে দুই জনকে আটক করেছে। সাবিক আটকের পর থেকে তার পরিবারের লোকজন বাড়িঘরে তালা ঝুলিয়ে পালিয়ে গেছে। নিখোঁজ সুজনের চাচা রফিকুল ইসলাম রবি জানান, গত রোববার (২০ সেপ্টম্বর) বিকালে সুজন সার আনতে আউশিয়া বাজারে যায়। বাজারের একটি চায়ের দোকানে চা পান করার সময় পাওয়ানা ৮০০ টাকা নেওয়ার জন্য জনৈক রাকিব মোবাইল করে। রাকিব সে সময় সুজনকে রাকিবের ছোট ভাই সাকিবের মটরসাইকেলে চলে আসার জন্য জানালে চায়ের দোকান থেকে সুজন সাকিবের মটরসাইকেলে চলে যায়। বাজারের অনেকেই ঘটনাটি প্রত্যক্ষ করেন। সেই থেকে ৪ দিন ধরে সুজন নিখোঁজ রয়েছে। তাকে হত্যা করে গুম করা হতে পারে বলে পরিবারের অভিযোগ। সুজনের ভগ্নিপতি কুষ্টিয়ার ধরমপাড়া গ্রামের মেরাজ উদ্দীন জানান, চার দিন ধরে আমরা সুজনকে খুজছি। কোথাও পাচ্ছি না। আমরা শৈলকুপা থানায় জিডি করেছি। বিষয়টি নিয়ে শৈলকুপা থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম জানান, আমরা যথাসাধ্য চেষ্টা করছি সুজনকে উদ্ধারের জন্য। তিনি বলেন সাকিব নামে এক যুবকে আটকের পর তার পরিবারের লোকজন পালিয়ে গেছে। এতে পুলিশের মধ্যে সন্দেহ বাড়ছে। ওসি জানান, মোবাইল ট্রাকিং করে আমরা রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা করছি।

Please follow and like us: