“ মাস্ক নেই, সেবা নাই ”, “ মাস্ক নেই, বিক্রি নাই ”

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে মাগুরার শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ
“ মাস্ক নেই, সেবা নাই ”, “ মাস্ক নেই, বিক্রি নাই ” ।

আশরাফ হোসেন পল্টু,শ্রীপুর(মাগুরা)প্রতিনিধি:
“ মাস্ক নেই,সেবা নাই , মাস্ক নেই, বিক্রি নাই ” এ শ্লোগানকে সামনে নিয়ে মাগুরার শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়াছিন কবীর উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জনসচেতনতামূলক এক ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ গ্রহন করেছেন ।
এ উদ্যোগকে বাস্তবায়ন করতে তিনি উপজেলার পরিষদের চেয়ারম্যান, সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী, ইউপি চেয়ারম্যান, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী ও স্বেচ্ছাসেবকদের সমন্বয়ে উপজেলা পর্যায় থেকে শুরু করে মাঠ পর্যায় পর্যন্ত মাইকে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা ও জনসচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণের কাজ শুরু করেছেন। শুক্রবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়াছিন কবীর তাঁর অফিস কক্ষে উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের স্বেচ্ছাসেবকদের হাতে “ মাস্ক নেই,সেবা নাই , মাস্ক নেই, বিক্রি নাই ” শ্লোগান সম্বলিত লিফলেটগুলি তুলে দেন।
লিফলেট বিতরণ শেষে মুষলধারে বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্বেচ্ছাসেবকদের সাথে নিয়ে উপজেলা সদরের কয়েকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করেন এবং ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে সচেতনতামূলক বক্তব্য ও লিফলেট বিতরণ করেন। এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দ্বারিয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাজির হোসেন কানন ও শ্রীপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ হোসেন পল্টু ।


এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ ইয়াছিন কবীর বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে মাস্ক ব্যবহারের বিকল্প নেই । কিছু কিছু মানুষের মাস্ক ব্যবহারে যথেষ্ট অনীহা রয়েছে। যেকারনে মাস্ক ব্যবহার,সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও নিয়মিত বিশ সেকেন্ড সাবান দিয়ে হাত ধোয়াকে সামাজিক আন্দোলনে পরিনত করতে হবে । আর এজন্যই মানুষকে মাস্ক ব্যবহারে আরো সচেতন করতে উপজেলা প্রশাসন “ মাস্ক নেই,সেবা নাই , মাস্ক নেই, বিক্রি নাই ” কর্মসূচি হাতে নিয়েছে । এ কর্মসূচির মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে মাস্ক ব্যবহার না করলে তাকে কোন সেবাও দেওয়া যাবেনা আবার তার কাছে কোন পণ্য সামগ্রী বিক্রি করা যাবে না । তাই জনগণকে সচেতন করতে “ মাস্ক নেই,সেবা নাই , মাস্ক নেই, বিক্রি নাই ” লিফলেটটি প্রতিটি সরকারি দপ্তর,ব্যবসা প্রতিষ্ঠান,যানবাহনসহ বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে টাঙিয়ে রাখার বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছে । তবে কেউ এ বিষয়টির ব্যত্যয় ঘটালে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে ।

Please follow and like us: