নড়াইলের উজিরপুরের আলোচিত শিশু ধর্ষণ মামলার আসামী অপু বিশ্বাসের বয়স নিয়ে বিতর্কের অবসান 

নড়াইলের উজিরপুরের আলোচিত শিশু ধর্ষণ মামলার আসামী অপু বিশ্বাসের বয়স নিয়ে বিতর্কের অবসান হয়েছে। ডাক্তারি পরিক্ষার তার বয়স ১৯/২০ বছর নির্ধারণ হয়েছে। রোববার (১১অক্টোবর) নড়াইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ ট্রাইবুল ও জেলাও দায়রা জজ নিলুফার শিরিনের আদালতে বয়স নির্ধারনে গঠিত মেডিকেল বোর্ড তাদের এ সংক্রান্ত  রিপোর্ট দাখিল করে।
আদালত সূত্রে জানাগেছে, অভিযুক্ত ধর্ষক অপুর বয়স নিয়ে বিতর্ক দেখা দিলে বিষয়টি নিস্পত্তি কল্পে আদালত নড়াইলের সিভিল সার্জনকে মেডিকেল পরিক্ষার মাধ্যমে অপুর বয়স নির্ধারণ করে প্রতিবেদন প্রদানের নির্দেশ দেন। এ প্রেক্ষিতে সিভিল সার্জন কতৃক গঠিত ৫জন চিকিৎসকের মেডিকেল বোর্ড প্রয়োজনীয় শারীরিক পরিক্ষার
করে তাদের নিকট অভিযুক্তের বয়স ১৯/২০ বছর বলে প্রতিয়মান হলে, রবিবার এ বিষয়ে রিপোর্ট দাখিলের ধার্য দিনে আদালতে এ মর্মে রিপোর্ট দাখিল করা হয়।  এদিন আদালতের নিকট অভিযুক্ত অপু প্রাপ্তবয়স্ক বিবেচিত হওয়ায় তাকে যশোর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র থেকে নড়াইল জেলা কারাগারে স্থানান্ত্মরের আদশে দেয়া হয়।
মামলা সূত্রে জানাগেছে, গেল ৩০আগষ্ট দিনমজুর বাবা-মা প্রতিদিনের মতো কাজে গেলে নড়াইল পৌরসভার উজিরপুর গ্রামের ৪বছরের শিশুটিকে একা পেয়ে তাদের প্রতিবেশি বখাটে অপু বিশ্বাস ফুসলিয়ে নির্জনে নিয়ে তাকে ধর্ষন করে। এ ঘটনায় নির্যাতিতার বাবার দায়ের করা মামলায় সেদিনই অপুকে পুলিশ গ্রেফতার করে আদালতে অপ্রাপ্তবয়স্ক হিসেবে সোপর্দ করলে সে সময় আদালত তাকে যশোর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে নেয়ার নির্দেশ দেন।
Please follow and like us: