নড়াইলে স্বামীর সম্পদ ফিরে পেতে অসহায় স্ত্রীর পুলিশ সুপারের কাছে আবেদন

নড়াইল প্রতিনিধি
নিজের স্বামীর সম্পদ ফিরে পেতে এক অসহায় স্ত্রী বিচারের দাবিতে দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন। তিনি সামাজিক ভাবে সুষ্ঠ বিচার না পেয়ে গতকাল ৮ এপ্রিল পুলিশ সুপার বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। ভুক্তভোগী স্ত্রীর নাম যুতিকা সিকদার। তিনি সদর উপজেলার সিঙ্গেশোলপুর ইউনিয়নের সিঙ্গে গ্রামের অশোক সিকদারের স্ত্রী।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, যুতিকা সিকদারের স্বামী অশোক সিকদার দীর্ঘ দিন নানাবিধ রোগেভুগছিলেন। তার আপন ভাইয়েরা বিভিন্ন অজুহাতে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে তার জমি পাওয়ার অব এ্যাটনি করে নেন বলে স্ত্রী যুতিকা সিকদারের অভিযোগ।স্বামীর অসুস্থতার এক পর্যায়ে তিনি মানষিক ভারসাম্য হীন হয়ে পড়েন। স্বামীর অসুস্থতায় যুতিকার সুখের সংসারে নেমে আসে অভাব-অনটন। অপর দিকে এক ছেলে ও এক মেয়ের পড়াশুনা চালু রাখতে গিয়ে তিনি বিপাকে পড়েছেন। এদিকে বাবার সম্পদ হারানোর চিন্তায় মানষিক ভার সাম্যহীন হয়ে পড়েন যুতিকার পুত্রসন্তান অনুপম সিকদার। এহেন পরিস্থিতিতে যুতিকার করুন আর্তনাৎ আকাশ বাতাস প্রকম্পিত হলেও এত-টুকুও মনগলাতে পারিনি সম্পদ কেড়ে নেয়া লোভীদের। জোর জুলুম করে তার স্বামীরসম্পদ কেড়ে নেয়ার নেপথ্যে রয়েছেন ওই ইউনিয়নের প্রভাবশালী একটি মহল। আর এই মহলের নেতৃত্ব দিয়েছেন ইউনিয়নের সাবেক এক চেয়ারম্যান। বর্তমানে তাকে এ বিষয়ে কিছু বলতে গেলে তার পরিবারকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি-ধামকি দেয়া হচ্ছে বলে জানান যুতিকা বিশ্বাস। নিরুপায় হয়ে তিনি পুলিশ সুপারের নিকট আইনের মোতাবেক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য একটি আবেদন করেছেন।এছাড়াও তার সম্পতি ফিরে পেতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের আশুহস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।
এ বিষয়ে সাবেক চেয়ারম্যান খয়ের মোল্যা জানান,‘তাদের পৈতৃক সম্পতির কিছু অংশ অশোকের কাকাঅশোককে দান করে গেছেন। অশোকের ভাইয়েরা কি করছে সেটা তাদের পারিবারিক ব্যাপার। এ বিষয়ে আমার কিছুইকরার নেই।
পুলিশ সুপার প্রবির কুমার রায় (পিপিএম বার) তদন্ত সাপেক্ষে ন্যায় বিচারের আশ্বাস দিয়েছেন।

Please follow and like us:

আপনার মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here