সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে আটক ১

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে ৭ম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে নির্মাণ শ্রমিক মাহাফিজুল ইসলামকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার সকালে উপজেলার কুলিয়া দুর্গাপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর আগে ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা গতকাল রাতে কালিগঞ্জ থানায় মাহাফিজুল ইসলামকে আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।
ধর্ষক মাহাফিজুল ইসলাম উপজেলার কুলিয়া দুর্গাপুর গ্রামের মৃত মেনা মোল্যার ছেলে।
কালিগঞ্জ থানার ওসি দেলোয়ার হুসেন জানান, নির্মাণ শ্রমিক মাহাফিজুলের খালার বাড়ি কালিগঞ্জের বসন্তপুর গ্রামে। খালার বাড়িতে মাঝে মাঝে বেড়াতে যাওয়ার সুবাদে মাহাফিজুলের কু-নজর পড়ে ওই স্কুল ছাত্রীর ওপর। গতকাল সকালে খালার বাড়ির পাশে একটি বাগানে ওই স্কুল ছাত্রীকে একা পেয়ে তাকে ধর্ষণ করে মাহাফিজুল। এ সময় ওই স্কুল ছাত্রীর আতœচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে ধর্ষক পালিয়ে যায়। এরপর রাতেই ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে মাহাফিজুলকে আসামী করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। আজ সকালে পুলিশ ধর্ষক মাহাফিজুলের কুলিয়া দুর্গাপুরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করেন।
ওসি আরো জানান, ধর্ষিতা স্কুল ছাত্রীকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে মেডিক্যাল টেস্ট করানোর জন্য ভর্তি করা হয়েছে। একই সাথে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তার জবানবন্দী রেকর্ড করার প্রক্রিয়া চলছে এবং আসামী মাহাফিজুল ইসলামকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Please follow and like us: