বেনাপোলের পুটখালী থেকে র‌্যাব অস্ত্র সহ এক ব্যক্তিকে আটক করেছে

বেনাপোল পোর্ট থানার পুটখালী গ্রামের ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান এর বাড়ি থেকে র‌্যাব – ৬ এর সদস্যরা বেশ কিছু অস্ত্র শস্ত্র উদ্ধার করেছে এবং এই ব্যাক্তিকে আটক করেছে। এ সম্পর্কে র‌্যাব-৬ এর কোম্পানি কমান্ডার লে, এম সারোয়ার হুসাইন ( এক্স্র) বিএন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ শুক্রবার এই খবর জানানো হয়।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, র‌্যাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই মাদক, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, অপহরণ কারীদের বিরুদ্ধে কঠোর অভিযান পরিচালনা করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় অদ্য ইং ৩০/১০/২০২০ তারিখ সকাল ১১.৩০ ঘটিকার সময় র‌্যাব-৬, সিপিসি-৩, যশোর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার এর নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল যশোর জেলার বেনাপোল পোর্ট থানাধীন পুটখালী পশ্চিম পাড়া সাকিনস্থ ধৃত আসামী হাবিব বিশ^াস এর একতলা পাঁকা দালানের ভেতর রান্না ঘরের পূর্ব-পশ্চিম কর্নার হইতে অভিযান পরিচালনা করে আসামী মোঃ হাবিব বিশ^াস (৩৮), পিতা- মৃত কোরবান আলী, সাং- পুটখালী, থানা-বেনাপোল পোর্ট, জেলা-যশোর’কে (১) ০৯ (নয়) টি বিদেশী পিস্তল (২) ১৯ (উনিশ) টি পিস্তলের ম্যাগাজিন (৩) ৪৯ (উনপঞ্চাশ) রাউন্ড পিস্তলের গুলি ও ০১ (এক) টি মোবাইল ফোন সহ গ্রেফতার করা হয়। ধৃত আসামী ও জব্দকৃত আলামত যশোর জেলার বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করতঃ মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন।

এ সম্পর্কে সরেজমিন ওই গ্রামে যেয়ে যা জানা গেল তাহলো হাবিবুর রহমান এর ভাই মাহবুব ও ভাবী রুপালী বেগম জানায় রাত আনুমানিক ১.৪০ টার সময় বাড়ির প্রধান ফটক এর তালা ভেঙ্গে একদল লোক র‌্যাব পরিচয়ে তাদের বাড়িতে প্রবেশ করে। বাড়িতে ঢোকার আগে তারা বাড়ির সিসি ক্যামেরার তার কেটে ফেলে। এরপর হাবিবুর রহমান এর ঘরের তালা ভেঙ্গে তার ঘর সহ সকল ঘর তল্লাশি করে চলে যাওয়ার সময় র‌্যাব সদস্যরা একটি সাদা কাগজ দিয়ে বলেন, আপনারা স্বাক্ষর করেন আমরা কোন মালামাল আপনারদের বাড়িতে পায়নি। এর কিছুক্ষন পর আবার তারা বাড়িতে প্রবেশ করে একটি বালতি উঠানে রেখে বলে অস্ত্র পাওয়া গেছে। সেখানে নাকি ওই সব পিস্তল, ম্যাগজিন, ও গুলি ছিল। আমাদের বাড়িতে ব্যাবহারের জন্য দা ছাড়া অন্য কোন জিনিস ছিল না। আমাদের গ্রামের কিছু লোক শত্রæতা মুলক এ কাজ করেছে। শার্শার কন্যাদাহ গ্রামের ভুট্রো নামে একজন ঘরজামাই লোক থাকে আমাদের পাশের মিজান এর বাড়িতে। সে এবং তার সাঙ্গপাঙ্গরা এসব কাজ শত্রæতা মুলক করতে পারে। এছাড়া তারা আরো বলে হাবিবুর রহমান আজ প্রায় দুই বছর গ্রামের লোকের শত্রæতার জন্য বাড়ি ছাড়া। শুনেছি তাকে যশোর থেকে আটক করা হয়েছে। রাতে তাকে র‌্যাব সদস্যরা বাড়িতে এনেছে কি না জানতে চাইলে তারা বলে আমরা হাবিকে দেখিনি। তবে তারা জানায় যে সিসি ক্যামেরার ডিভাইস র‌্যাব সদস্যরা নিয়ে গেছে।

ওই গ্রামের ওলিয়ার রহমান নামে এক ব্যক্তি বলেন আমাকে সহ আরো ২ জনকে গভীর রাতে ঘুম থেকে ডেকে এনে র‌্যাব সদস্যরা একটি বালতি দেখায়। এবং বালতি দেখানোর পর একটি সাদা কাগজে তারা স্বাক্ষী হিসাবে আমার সহ আরো দুজনের স্বাক্ষর করিয়ে নেয়। তবে ওই অস্ত্র এই বাড়ি থেকে উদ্ধারের সময় আমি সাথে ছিলাম না।
এই গ্রামের হারান ( পিতা ওলিয়ার রহমান বিশ্বাস) নামে এক যুবক বলেন এটা একটি সাজানো ঘটনা বলে লোকজন ধারনা করছে।

Please follow and like us: