সাতক্ষীরার আশাশুনিতে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত-২, আটক-১

সাতক্ষীরার আশাশুনিতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় অন্তত ১০-১২টি বোমা বিস্ফোরণ এবং কয়েকটি দোকান ভাঙচুর ও একটি বাড়িতে আগুন দেওয়া হয়েছে। এ সময় গুরুতর আহত হয়েছেন দুই জন। পুলিশ এ ঘটনায় সাইফুল ইসলাম নামে একজনকে আটক করেছে। রোববার রাত ৮টা থেকে রাত ১টা পর্যন্ত উপজেলার কাপসন্ডা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন, রমজান গ্রæপের আবু রায়হান ও কামরুল ইসলাম। এর মধ্যে আবু রায়হানের অবস্থা আশংকাজনক। জানা যায়, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় রউফ ও রমজান গ্রæপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে দ্ব›দ্ব চলে আসছিল। এর জের ধরে রোববার রাতে চেউটিয়া গ্রামের রমজান গ্রæপের আবু রায়হান ইটের ভাটায় কাজ করতে যাওয়ার সময় পথিমধ্যে কাপসন্ডা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে পৌঁছুলে পূর্ব শত্রæতার জের ধরে রউফ গ্রæপের লোকজন তাকে বেদম মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করে। এ ঘটনায় সঙ্গে সঙ্গে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে রামদা, লাঠিসোটা ও বোমা নিয়ে দুই গ্রæপ মুখোমুখি অবস্থান নেয়। এসময় তাদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ভাঙচুর করা হয় আনারুল বিশ^াস ও সোহেলসহ কয়েকজনের দোকান এবং মারপিটসহ আগুন দেওয়া হয় কামরুল নামে একজনের বাড়িতে। এ সময় ১০-১২টি বোমা বিস্ফোরণ ঘটানোয় এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। রাতেই মারাত্মক আহত আবু রায়হান ও কামরুলকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ রাত ১টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম কবীর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও তদন্ত শুরু করেছে। এ ঘটনায় ইতোমধ্যে সাইফুল ইসলাম নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া ক্ষতিগ্রস্তদেরও অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে।

Please follow and like us: