সাতক্ষীরায় ইজিবাইক চালককে জবাই করে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের, ঘাতক বন্ধুর স্বীকারোক্তি

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি ঃ সাতক্ষীরায় ইজিবাইক চালক সালাহউদ্দীনকে জবাই করে হত্যার ঘটনায় তার বন্ধু ঘাতক সাগর হোসেনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। শনিবার রাতে নিহত সালাহউদ্দীনের বাবা শাহজাহান আলী ওরফে বাবু সরদার বাদী হয়ে এ হত্যা মামলাটি দায়ের করেন। এর আগে পুলিশ গতকাল সন্ধ্যায় খুনি সাগর হোসেনকে হত্যায় ব্যবহৃত রক্তমাখা ছুরিসহ গ্রেপ্তার করে। মাত্র ২০০ টাকার জন্য সে তার বন্ধুকে খুন করেছে বলে স্বীকার করেছে।
ঘাতক সাগর হোসেন (১৬) শহরের রসুলপুর এলাকার শহিদুল ইসলামের ছেলে। অপরদিকে, নিহত কিশোর ইজিবাইক চালক সালাউদ্দিন হোসেন (১৫) শহরতলীর কাশেমপুর মালীপাড়া শাহজাহান আলী ওরফে বাবুর ছেলে।
সাতক্ষীরার গোয়েন্দা পুলিশ পরিদর্শক ইয়াসিন আলম চৌধুরী জানান, ঘাতক সাগর হোসেনকে শনিবার লাশ উদ্ধারের তিন ঘন্টার মধ্যে শহরের পলাশপোলের সরকারি গোরস্থানের কাছ থেকে গ্রেফতার করা হয়। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শহরতলির লাবসা বাইপাসের কাছে একটি গ্যারেজ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত ধারালো ছুরি জব্দ করা হয়। তার দেওয়া জবানবন্দি অনুযায়ী শুক্রবার রাত ৩ টায় সে তার বন্ধু সালাউদ্দিন কে হত্যা করে। জবানবন্দির সূত্র ধরে তিনি আরও বলেন, বন্ধু সাগর হোসেন সালাউদ্দিনের কাছে গাঁজা কিনবার জন্য ২০০ টাকা দিয়েছিল। কিন্তু সালাউদ্দিন গাঁজা কিংবা টাকা কোনোটাই ফেরত না দেওয়ায় সে তাকে খুন করেছে বলে জানিয়েছে। তাকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।
এর আগে শনিবার বেলা দেড়টার দিকে সাতক্ষীরা শহরতলির কাশেমপুর মালীপাড়া এলাকা থেকে কিশোর সালাহউদ্দীনের জবাই করা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।
সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বুরহান উদ্দীন জানান, নিহত সালাহ উদ্দীনের বাবা বাদী হয়ে রাতে মামলাটি দায়ের করেছেন।

Please follow and like us:

আপনার মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here