কলারোয়ায় আলোচিত হত্যার চেষ্টা মামলার বাদীকে প্রকাশ্যে জীবননাশের হুমকি, ৪ দিনের আল্টিমেটাম

কলারোয়ায় আলোচিত হত্যার চেষ্টা মামলার বাদীকে প্রকাশ্যে জীবননাশের হুমকি, ৪ দিনের আল্টিমেটাম

-সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃ সাতক্ষীরার কলারোয়া উপজেলার বাটরায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে পরিকল্পিতভাবে আলোচিত হত্যা চেষ্টার ঘটনায় করা মামলার বাদীকে প্রকাশ্যে মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি দিয়েছে প্রতিপক্ষ। তারা সর্বোচ্চ ৪ দিন সময় বেঁধে দিয়েছে মামলা তুলে নেওয়ার জন্য। এসময় প্রতিপক্ষরা বাদীর বাড়ির সামনে এসে বাদী মাছুরা খাতুন, স্বামী ইনছাপ আলী, পুত্র আবুবক্কর সিদ্দিকসহ মেয়ে জামাইকে প্রকাশ্যে হত্যা করবে বলে হুমকি দেয়। এ বিষয়ে কলারোয়া থানায় মাছুরা খাতুন বাদী হয়ে একটি সাধারণ ডায়েরী করেছে। যার নং-১৪৩৬, তাং- ৩০/০৭/২১ ইং।
উল্লেখ্য, গত ২৪ জুলাই, শনিবার বিকাল ৩.৩০ সময় কলারোয়া উপজেলার বাটরা গ্রামে জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে মৃত আফাজ উদ্দীন সরদারের পুত্র ইনছাপ আলীর বাড়িতে একই গ্রামের মৃত আফাজ উদ্দীনের পুত্র আমজেদ আলী সরদার ও তার ২ পুত্র ফারুক হোসেন এবং মামুন হোসেন অনধিকার প্রবেশ করে গাছি দা ও লাঠিসোটা নিয়ে তাকে হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও লাঠিসোটা দিয়ে পিটিয়ে নিলাফোলা এবং হাড়কাটা জখম করে। ইনছাপ আলীর পুত্র তাৎক্ষণিক ৯৯৯ এ ফোন করলে কলারোয়া থানার এ এস আই মামুন সহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কলারোয়া সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে সে কলারোয়া সরকারী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন । এ সুযোগে আমজেদ আলী ইনছাপ আলীর বসত বাড়ির ক্রয়কৃত ৮ শতক জমিতে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কেটে বাঁশের ঘেরাবেড়া দিয়ে জবর দখল করে নেয়। এ বিষয় ইনছাপের স্ত্রী মাছুরা খাতুন গত ২৫ জুলাই বাদী হয়ে কলারোয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন, যার নং জি আর-৩১/২৮২।
এ বিষয়ে মাছুরা খাতুন বলেন, “আমার স্বামী ইনছাপ আলী সরদারকে প্রতিপক্ষরা হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। পুলিশি সহযোগিতায় হাসপাতালে ভর্তি করি। কলারোয়া থানায় মামলা করি। এত কিছুর পরেও প্রতিপক্ষরা প্রকাশ্যে আমি সহ আমার পরিবারকে জীবননাশের ও মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি দিচ্ছে। এতে আমরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। আমি যাতে ন্যায় বিচার পাই তার জন্য সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার সহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি। একই সাথে আসামীদের আটকপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানাচ্ছি।” আসামী আটক ও জীবননাশের হুমকির বিষয়ে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই হামিদুল ইসলাম জানান, আমরা আইনানুগ পদক্ষেপ নিচ্ছি।

Leave a Reply