সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সম্পত্তি দখল চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সম্পত্তি দখল চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের চাম্পাফুলে জালিয়াতির মাধ্যমে ভূয়া দলিল সৃষ্টি করে । মঙ্গলবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করে এবিষয়ে প্রতিকার চেয়ে পুলিশ সুপারের হস্থক্ষেপ কামনা করেছেন উপজেলার চম্পাফুল গ্রামের মৃত. হেমনাথ মন্ডলের ছেলে পরিতোষ মন্ডল।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন,কালিগঞ্জের চম্পাফুল ইউনিয়নের চম্পাফুল ও ধণ্যহাটি মৌজায় এস এ ৩৮,৩৯,৪০সহ অন্যান্য, বি এস খতিয়ান ৪৪০, ৪৪১, ৫৪৫, ৮০৮,৮০৯ এবং ৩৪,৩৫,৩৬, ৪২সহ অন্যান্য দাগে মোট ২৭২. ৩৪ শতক সম্পত্তি পৈত্রিক ও ক্রয় সূত্রে প্রাপ্ত হয়ে দীর্ঘদিন শান্তিপূর্ণভাবে ভোগদখল করে আসছি। আমরা তিন ভাইয়ের মধ্যে বড় ভাই সন্তোষ ও ছোট ভাই মনতোষ দীর্ঘদিন ধরে ভারতে বসবাস করার সুবাধে সেখানকার বাসিন্দা হয়েছেন। তারা দীর্ঘদিন দেশে আসেন না। সম্প্রতি আশাশুনি উপজেলার গোদাড়া গ্রামের মৃত. আমীর উদ্দীন সরদারের ছেলে পর সম্পদ লোভী নজরুল ইসলাম জালিয়াতির মাধ্যমে একটি ভ‚য়া দলিল সৃষ্টি করেছেন। আমার ছোট ভাই মনতোষ নাকি তার কাছে সম্পত্তি বিক্রি করেছে। অথচ দীর্ঘদিন সে বাংলাদেশে আসেনি। ফলে নিজে রেজিস্ট্রি অফিসে হাজির না হয়েও কিভাবে নজরুলকে জমি রেজিস্ট্রি করে দিলো। শুধু তাই নয় ওই দলিলে মনতোষের ভোটার আইডি কার্ড দেওয়া হয়েছে। সেটিতে যে আইডি নম্বর রয়েছে সেটি আমার স্ত্রী সুমিত্রা রাণী মন্ডলের। প্রকৃতপক্ষে নজরুল গোপনে আমার স্ত্রীর আইডি কার্ড ম্যানেজ করে কম্পিউটারের মাধ্যমে নাম ও ছবি পরিবর্তন করে মনতোষের ছবি সংযুক্ত করেছে। কাজেই ওই ভুয়া আইডি কার্ড ব্যবহার করে নজরুল জাল দলিল সৃষ্টি করেছে।

পরিতোষ মন্ডল অভিযোগ করে বলেন, জাল দলিল সৃষ্টির মাধ্যমে নজরুল আমার ভাইয়ের সম্পত্তি ক্রয়ের দাবি করলেও এখন আমার সম্পত্তি দখলের পায়তারা চালাচ্ছেন। এমতবস্থায় আমার সম্পত্তিতে গেলে তারা ভাড়াটিয়া বাহিনীর সহযোগিতায় আমাকে খুন জখমের হুমকি দিচ্ছে। একই সাথে আমাদেরকে একাধিক মিথ্যে মামলায় ফাঁসিয়ে হয়রানির ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। প্রভাবশালী হওয়ায় তার বিরুদ্ধে এলাকাবাসী কেউ মুখ খুলতে চায় না।
নজরুল ইসলাম ভ‚য়া দলিল করে আমার ভাইয়ের সম্পত্তির দখলে নেওয়ার চেষ্টা করছেন, আবার আমার সম্পত্তিতেও আমাকে যেতে দিচ্ছে না। ফলে জমিতে চাষাবাদ করতেও পারছি না। ওই সম্পত্তি টুকু ছাড়া আমার কিছুই নেই। ওই টুকু দখল করে নেওয়া হলে আমাকে স্ত্রী-পরিজন নিয়ে পথে বসতে হবে। আমি বর্তমানে ওই প্রভাবশালী নজরুল ইসলামের কারণে নিরাপত্তাহীনতায় ভ‚গছি। তিনি নজরুলের কবল থেকে তার পৈত্রিক ও ক্রয়কৃত সম্পত্তি রক্ষা এবং নিরাপত্তার দাবিতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ করেন।

Please follow and like us: