এসপি খান মোহাম্মদ রেজোয়ানকে নিয়ে পক্ষপাতিত্বের অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাই

শাহিনুর আহমেদঃ

মাগুরার এসপি খান মোহাম্মদ রেজোয়ান তিনি কখনো অন্যায়ের কাছে মাথা নত করেন না। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সঙ্গে বেইমানি করবেন খান মোহাম্মদ রেজোয়ান স্বাধীনতা বিরোধী বিএনপি জামাতের নেতা কর্মীদের কে মদদ দেবে এটি তার জীবন চলে গেলেও সম্ভব নয়। এসপি খান মোহাম্মদ রেজোয়ানকে নিয়ে পক্ষপাতিত্বের ভূয়া অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাই। খান মোহাম্মদ রেজোয়ান সরকারের একজন সফল মানবিক পুলিশ অফিসার। রাষ্ট্রের সকল জনগন ও সম্পদ রক্ষা এবং সুস্বাসন কায়েম করা তার নৈতিক দায়িত্ত । এস পি খান রেজোয়ানের পিতা একজন সৎ আদর্শবান স্কুল শিক্ষক। এসপি খান রেজোয়ানের শশুর যশোর এর এম পি শাহিন চাকলাদারের মেঝো ভাই সাত্তার চাকলাদারের জামাতা। এসপি খান রেজোয়ানের বড় ভাই কর্নেল এস এম বায়েজিদ খান প্রয়াত ধর্মমন্ত্রী শেখ আব্দুল্লাহর জামাতা। ৩য় ভাই মুহাম্মদ গালিব খান উপ নিবন্ধক, সমবায় অধিদপ্তর, সমবায় (সাবেক সহ-সভাপতি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদ) ৪. মো: তারেক খান (গোয়েন্দা কর্মকর্তা) জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা সংস্থা  ৫.মো: মেহেরুন খান এস আই। এটাই তার ফ্যামিলির পরিচয়। একজন মানবিক পুলিশ সুপার হিসেবে খান মুহাম্মদ রেজোয়ানের সুনাম দেশব্যাপি খ্যাত। তার সময়ে মাগুরায় মাত্র ১০০ টাকা ব্যাংক ড্রাফটে অনেকেই পুলিশে চাকরি পেয়েছেন। যারা চাকরি পেয়েছেন তারা প্রত্যেকেই জানিয়েছেন, হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান ঘুষ লাগলে তাদের কপালে আর চাকরি জুটতো না। এ জন্য তারা মাগুরা পুলিশ সুপারকে সে সময়ে ধন্যবাদ জানান।
মাগুরার পুলিশ সুপার খান মুহাম্মদ রেজোয়ান সে সময় জানিয়েছিলেন, পুলিশের চাকরির সাথে রয়েছে মানবিক সেবার সম্পর্ক। এটি একটি পবিত্র দায়িত্ব। তিনি সেই দায়িত্বটি পালন করেছেন। এক জন বিচারক তিনি যদি ন্যায় বিচার করেন সেটা কারো পক্ষে বা কারো বিরুদ্ধে যাবে সেটাই সাভাবিক নিয়ম। এটাকে যদি কেউ স্বজন প্রীতি বা আত্তীয় করন বলেন, তবে এই দেশে সৎ অফিসার গুলো কি ভাবে ন্যায় বিচার করবেন। আর অসহায় মানুষ গুলো কেমনে ন্যায় বিচার পাবেন।

Please follow and like us:

হালনাগাদঃ