বগুড়ায় উদ্ধারকৃত ফেন্সিডিল বিক্রির অভিযোগে এএসপি’র বদলী এবং ২ পুলিশ কর্মকর্তা প্রত্যাহার

বগুড়া জেলা প্রতিনিধি: বগুড়ায় শিবগঞ্জ থানার মোকামতলায় মহাসড়কে যাত্রীবাহী বাসে মাদকবিরোধী পৃথক অভিযান চালিয়ে উদ্ধারকৃত ২৪৮ বোতল ফেন্সিডিলের মধ্যে ৮৮ বোতল ফেন্সিডিল বিক্রি করার অভিযোগে প্রত্যাহার করা হয়েছে মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মো: শাহীন উজ্জামান এবং মামলার বাদী এস.আই সুজাউদৌল্লা কে। একই ঘটনার প্রেক্ষিতে দায়িত্বে অবহেলার কারণে শিবগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকী কে প্রত্যাহার করে সংযুক্ত করা হয়েছে বরিশাল রেঞ্জ ডিআইজির কার্যালয়ে।
বুধবার বিকেলে ২ পুলিশ কর্মকর্তার প্রত্যাহার এবং এএসপি’র বদলীর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ।
জানা যায়, চলতি বছরের ৩ এপ্রিল রাতে শিবগঞ্জ সার্কেলের সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার আরিফুল ইসলাম সিদ্দিকীর নেতৃত্বে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে চেকপোস্ট বসিয়ে বিভিন্ন যানবাহন তল্লাশি শুরু করা হয়। তল্লাশীকালে মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রর পুলিশ সদস্যরা ঢাকাগামী বাস পিংকি পরিবহন থেকে সাইফুল ইসলাম নামের একজনকে ১৯৮ বোতল ও খালেক পরিবহন থেকে নাজিম নামের এক ব্যক্তিকে ৫০ বোতল ফেন্সিডিল সহ আটক করা হয়। এ ঘটনায় মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রর উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুজাউদ্দৌলা বাদী হয়ে পরেরদিন ৪ এপ্রিল পৃথক দুইটি মামলা দায়ের করেন মামলা নং ৪ ও ৫ তাং- ৪/৪/২০২১ইং। উদ্ধারকৃত পিংকি পরিবহন থেকে ১৯৮ বোতল ফেনসিডিলের স্থলে ১১০ বোতল জব্দ দেখিয়ে সাইফুলের নামে মামলা দেয়া হয় বলে অভিযোগ উঠে। উদ্ধার করা বাকী ৮৮ বোতল মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এক পুলিশ সদস্য গোপনে বিক্রি করে দেয় যে ঘটনায় পুরো জেলায় আলোড়ন উঠে যায়। যার প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) এই অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ে মামলা দুটি জেলা গোয়েন্দা শাখায় স্থানান্তরের নির্দেশ দেয় পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম (বার) এবং এই ঘটনার নিজেই তদন্ত শুরু করেছেন মর্মে নিশ্চিত করেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আব্দুর রশিদ।
এ প্রসঙ্গে জেলা পুলিশের মিডিয়া মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফয়সাল মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি ড. বেনজীর আহম্মেদ স্বাক্ষরিত শিবগঞ্জ সার্কেল এএসপি’র বরিশাল রেঞ্জ ডিআইজির কার্যালয়ে সংযুক্তির এক প্রজ্ঞাপন বগুড়া পুলিশ সুপার কার্যালয়ে বুধবার পৌঁছেছে। একই দিনে উক্ত ঘটনার প্রেক্ষিতে বগুড়া পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম (বার) এর আদেশে মোকামতলা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক মো: শাহীন উজ্জামান কে প্রত্যাহার করে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে এবং এস.আই সুজাউদৌল্লা কে প্রত্যাহার করে বগুড়া পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে।
শিবগঞ্জের এই ঘটনা প্রসঙ্গে জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা বিপিএম (বার) বলেন, উক্ত ঘটনায় অভিযোগ পাওয়ার পর তিনি নিজেই বিষয়টি তদন্ত করছেন। ইতিমধ্যেই প্রাথমিক তদন্তেই ২ পুলিশ কর্মকর্তা কে প্রত্যাহার করা হয়েছে তবে সুষ্ঠু তদন্ত সাপেক্ষে প্রকৃত ঘটনা উদঘাটন করা হবে এবং দোষীদের অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে মর্মেও জানান তিনি।

Please follow and like us:

আপনার মন্তব্য লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here