১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার স্মার্টফোন নিয়ে আসছে শাওমি

0
286

বাজারে সাধ্যের মধ্যে ভাল স্মার্টফোনের তালিকা করতে গেলে তালিকার প্রথমে থাকবে শাওমির যেকোন স্মার্টফোন। সাধ ও সাধ্যের মধ্যে স্মার্টফোন নিয়ে কয়েক বছরের মধ্যের বাজারের শীর্ষে চলে এসেছে শাওমি। এখন তাদের ঝুলিতে রয়েছে নানান রকমের সেরা পুরষ্কার। এরই ধারাবাহিকতায় ৫ নভেম্বর ২০১৯ তারা একটি স্মার্টফোন উন্মুক্ত করেছে চীন দেশে। আশা করা হচ্ছে  

দুটি ক্যামেরা মডিউলের মধ্যে তুলনা

পোরট্রেট মোডে তোলা ছবিশীঘ্রই বাংলাদেশের বাজার কাপাবে এই ফোনটি। নাম

দেয়া হয়েছে মি নোট ১০

 

মি নোট সিরিজের এই প্রিমিয়াম ফোনের প্রধান ফিচারের মধ্যে থাকবে ১০৮ মেগাপিক্সেলের অসাধারণ একটি ক্যামেরা সহ মোট ৫ টি ক্যমেরা। বিশ্বের ইতিহাসে এরকম পাঁচটি ক্যামেরা একইসাথে এই প্রথম দিচ্ছে শাওমি। এই পাঁচ ক্যমেরা দিয়ে আপনি মশা মাছি থেকে শুরু করে দূরের বারান্দায় নজরদারির কাজও অনায়াসে সারতে পারবেন। এর টেলিফোটো লেন্স দিয়ে আপনি তুলতে পারবেন স্বাভাবিক দূরত্বের চেয়ে ৫০ গুণ দূরের বস্তুর ছবি। ছবির ডাইনামিক রেঞ্জ, শার্পনেস ও কালার হার মানিয়ে দিচ্ছে সেরা সেরা ফোনে ক্যামেরাগুলোকে। বিখ্যাত ক্যামেরা বেঞ্চমার্ক DxOMark এর হিসাবে ১২১ স্কোর নিয়ে হুয়াই মেট ৩০ ,স্যামসাং নোট ১০ কে এরই মধ্যে পেছনে ফেলে দিয়েছে।

ডিসপ্লে হিসেবে থাকছে ৬.৪৭ ইঞ্চির বাঁকানো এমোলেড পর্দা। পেছনে ও সামনে সুরক্ষার জন্য রয়েছে গরিলা গ্লাস ৫ , যা একই সাথে স্ক্র্যাচ ও আঘাত থেকে ফোনকে রক্ষা করবে। এবং শাওমি এই ফোনে হাই রেস অডিও সহ ৩.৫ মিমি হেডফোন জ্যাককে ফিরিয়ে এনেছে যা এখনকার সকল ফোন থেকে এই ফোনকে আলাদা করে।

ব্যাটারিতেও আছে চমক। ৫২৫০ মিলি এম্পিয়ার এর ব্যাটারি চলবে অনেক সময় ধরে। আবার চার্জ করতেও ব্যবহার হবে ৩০ ওয়াটের ফাস্ট চার্জার, যেটা ফুল চার্জ করতে সময় নেবে মাত্রে এক ঘন্টা ৬ মিনিট। গেমিং এর জন্য রয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি প্রসেসর ও এড্রেনো ৬১৮ জিপিইউ। প্রাথমিকভাবে সাদা, নীল আর কালো তিনটি রঙে পাওয়া যাবে ফোনটি।

এত সব অসাধারণ ফিচার থাকার পরেও এর দাম হতে পারে চাইনিজ বাজারে ৬+১২৮ জিবি ভার্সনের মূল্য হবে ৩৪০০০ টাকা এবং সর্বোচ্চ ফিচার সমৃদ্ধ প্রিমিয়াম ভার্সনের ৮ জিবি র‍্যাম নিয়ে মডেল বের হবে দুটি যার একটি হবে ১২৮ জিবি রম ও অপরটি ২৫৬ জিবি রম, মূল্য হবে যথাক্রমে ৪০০০০ ও ৪২৫০০ টাকার কাছাকাছি। এই প্রিমিয়াম রেঞ্জে খুব সম্ভবত স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫+ প্রসেসর থকবে।তবুও এর কাছাকাছি ফিচারের ফোন গুলোর দামের প্রায় অর্ধেক দামেই পাওা যাবে এই ফোনটি! কিভাবে সম্ভব?

যদিও শাওমি এর প্রসেসর হিসেবে ব্যবহার করেছে স্ন্যাপড্রাগন ৭৩০জি প্রসেসর যেটা তাদের খরচ কমাতে সাহায্য করেছে। তবুও শাওমি কিভাবে একটি প্রিমিয়াম ফোনের দাম এত কম রাখে জানতে এই নিউজটি শেয়ার করুন, পেজে লাইক দিন এবং কমেন্ট করে জানান । এর পরের কনটেন্ট হবে সেটা নিয়েই।

 

Please follow and like us: